জাতীয় পরিচয়পত্র হারানোর জিডি লেখার নিয়ম

আপনার ভোটার আইডি কার্ড বা জাতীয় পরিচয়পত্র হারিয়ে গেলে কিভাবে থানায় জিডি করবেন এবং জিডি লেখার নিয়ম লিখবেন বিস্তারিত।

জাতীয় পরিচয়পত্র হারানোর জিডি

জাতীয় পরিচয়পত্র হারিয়ে ফেলেছেন? নিকটস্থ থানায় একটি জিডি করুন এবং জাতীয় পরিচয়পত্র রিইস্যুর জন্য অনলাইনে আবেদন করুন। ১৫-২০ দিন পর আপনার এনআইডি উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে সংগ্রহ করুন। এখন দেখে নিন, জাতীয় পরিচয়পত্র হারানোর জিডি লেখার নিয়ম।

আমাদের অনেকেই জানেন না জাতীয় পরিচয়পত্র হারিয়ে গেলে কি করণীয়। জাতীয় পরিচয়পত্র হারালে আমাদের সর্বপ্রথম করণীয় হচ্ছে হচ্ছে, নিকটস্থ থানায় একটি হারানো জিডি করা। তারপর জিডির কপি আপলোড করে অনলাইনে এনআইডি রিইস্যুর জন্য আবেদন করতে হবে। দেখুন- হারানো জাতীয় পরিচয়পত্র পাওয়ার উপায়

তাই এখানে আমি দেখাবো, সাধারণ ডায়েরীর একটি নমুনা। কিভাবে সাধারণ ডায়েরী বা জিডি আবেদন লিখবেন তার একটি নমুনা নিচে দেখানো হল

জাতীয় পরিচয়পত্র হারানোর জিডি লেখার নিয়ম

নমুনা ১

তারিখঃ

বরাবর,
অফিসার ইনচার্জ,
থানার নাম,
উপজেলা, জেলা।

বিষয়ঃ সাধারন ডায়েরির জন্য আবেদন।

জনাব,

যথা বিহীত সম্মান পূর্বক বিনীত নিবেদন এই যে, আমি আপনার নাম (বয়স), পিতা/স্বামীঃ পিতা/স্বামীর নাম, গ্রামঃ গ্রামের নাম, ডাকঘরঃ আপনার ডাকঘর, উপজেলাঃ উপজেলার নাম, জেলাঃ জেলার নাম, আমি থানায় হাজির হয়ে এই মর্মে লিখিতভাবে জানাচ্ছি যে, গত হারানোর তারিখ  তারিখে আমার নিজ বাড়ি হতে যেকোন একটি স্থানের নাম আসার পথে অজ্ঞাত স্থানে আমার জাতীয় পরিচয়পত্র কার্ডটি হারিয়ে ফেলি। জাতীয় পরিচয়পত্র/ স্মার্ট কার্ড নম্বরঃ ৮****৫৮০০২৪৭, সম্ভাব্য অনেক স্থানে খোঁজাখুজি করেও পাচ্ছি না। এমতাবস্থায় বিষয়টি সাধারণ ডায়েরিভুক্ত করা একান্ত প্রয়োজন।

অতএব, উপরোক্ত বিষয়ে সাধারণ ডায়েরিভুক্ত করতে আপনার সু-আজ্ঞা হয়।

নিবেদক
এখানে স্বাক্ষর

(এখানে আপনার নাম)
মোবাইলঃ  মোবাইল নম্বর

ঠিকানাঃ

এভাবে আবেদনটি লিখে ২ কপি করবেন। তারপর যেখানে জাতীয় পরিচয়পত্র হরিয়েছে তার নিকটস্থ থানায় যাবেন এবং দায়িত্বরত অফিসারকে আবেদনের কপিগুলো দিবেন।

তিনি আবেদনটি গ্রহণ করে জিডি নম্বর ও তার স্বাক্ষর করে সিল দিয়ে আপনাকে ১ কপি দিবেন। সেই কপিটি আপনার কাছে থাকবে।

জিডি করার পর জিডি কপি আপলোড করে জাতীয় পরিচয়পত্র পুনরায় পাওয়ার জন্য আবেদন করতে হবে। দেখুন আবেদনের প্রক্রিয়া- জাতীয় পরিচয়পত্র পুনঃমুদ্রনের আবেদন।

FAQs

জিডি করতে কত টাকা লাগে?

থানায় সাধারণ ডায়েরি বা জিডি করতে কোন টাকা লাগে না।

জাতীয় পরিচয়পত্র সংক্রান্ত আরও তথ্যের লিংক

নতুন ভোটার হতে চাইলেনতুন ভোটার আইডি কার্ড করার নিয়ম
জাতীয় পরিচয়পত্র ডাউনলোডভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড
ছবিসহ যে কোন ব্যক্তির জাতীয় পরিচয় পত্র যাচাইভোটার তথ্য যাচাই
সংশোধনজাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন
জাতীয় পরিচয়পত্র হারিয়ে গেলেহারানো ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড
ঠিকানা ও ভোটার এলাকা পরিবর্তনভোটার আইডি কার্ডের ঠিকানা পরিবর্তন
ভোটার সিরিয়াল নম্বর জানতেভোটার সিরিয়াল নাম্বার জানার উপায়
এই ক্যাটাগরির সকল তথ্যভোটার আইডি কার্ড
হোমপেজHome

সকল আপডেট তথ্যের জন্য Facebook Page

Similar Posts

8 Comments

  1. আমার বাবা মা ডাকায় ২০০৮ সালে ভোট লেখিয়েছে এবং তখনকার NID CARD আছে। তখনকার NID CARD দিয়ে এখন আর ভোট দেওয়া যাচ্ছে না।এখন নতুন ভোটার হওয়ার জন্য কি কি করতে হবে?
    জানালে উপক্রিত হব।

    1. ২ বার আর ভোটার হওয়া যাবে না। আগের এনআইডি কার্ড যাচাই করে দেখুন। আইডি নম্বর অনলাইনে না থাকলে তখন নতুনভাবে ভোটার হতে পারবেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।