পাসপোর্ট আবেদন, পাসপোর্ট চেক, রিনিউ ও তথ্য সংশোধন সংক্রান্ত তথ্য ও পরামর্শ

ই পাসপোর্ট কি

অভিবাসন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, ই-পাসপোর্ট একটি বায়োমেট্রিক পাসপোর্ট যার একটি ইলেকট্রনিক চিপ রয়েছে। চিপটিতে সমস্ত বায়োমেট্রিক তথ্য রয়েছে, যা পাসপোর্টধারীর প্রমাণীকরণে ব্যবহৃত হবে।

এটি চিপস এবং অ্যান্টেনা সহ একটি মাইক্রোপ্রসেসর ব্যবহার করে। গুরুত্বপূর্ণ পাসপোর্ট তথ্য চিপে সংরক্ষিত আছে। ই-পাসপোর্টে নেওয়া বায়োমেট্রিক তথ্য হল ছবি, আঙুলের ছাপ এবং ছোখের আইরিশের ছবি। ইলেকট্রনিক বর্ডার কন্ট্রোল সিস্টেম (ই-বর্ডার) বাইরের বৈধতার সাথে পাসপোর্ট চিপের বায়োমেট্রিক তথ্যের তুলনা করে।

ই পাসপোর্ট কোন কোন জেলায় চালু হয়েছে

বর্তমানে সমগ্র বাংলাদেশেই ই পাসপোর্ট কার্যক্রম চালু আছে। তারপরও অনলাইনে আবেদনের পূর্বে জেনে নিন ই পাসপোর্ট কোন কোন জেলায় চালু হয়েছে

পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে ২০২১

ই পাসপোর্ট আবেদনের জন্য খুব বেশি কাগজপত্রের দরকার হয় না এবং সত্যায়িত করানোর ও প্রয়োজন হয় না। ই পাসপোর্ট আবেদনের জন্য নিম্মোক্ত কাগজপত্রসমূহ প্রয়োজন হবে
  • অনলাইনে আবেদনের সারসংক্ষেপ কপি – Application Summery
  • আবেদনের কপি- Application Form
  • জাতীয় পরিচয়পত্র/ অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ- NID/ Online Birth Registration
  • পূর্ববর্তী পাসপোর্টের ফটোকপি ও অরিজিনাল পাসপোর্ট (যদি থাকে)
  • পিতা মাতার জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি (শিশুদের ক্ষেত্রে আবশ্যিক)
  • ঠিকানার প্রমাণপত্র/ ইউটিলিটি বিলের কপি (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) – Utility Bill
  • পেশাগত সনদের ফটোকপি (পেশাজীবির ক্ষেত্রে- যেমন ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, হিসাবরক্ষক, আইনজীবি)
  • নাগরিক সনদ/ চেয়ারম্যান সার্টিফিকেট (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)

ই পাসপোর্ট করতে কত টাকা লাগবে | পাসপোর্ট করার নিয়ম ও খরচ ২০২১

পাসপোর্টের ধরণ যেমন, পৃষ্ঠা সংখ্যা, মেয়াদ, ও ডেলিভারীর ধরণের উপর ভিত্তি করে ফি ভিন্ন হয়ে থাকে।

পাসপোট ৪৮ পাতা ও ৬৪ পাতার হয়ে থাকে। আর মেয়াদের ক্ষেত্রে ৫ বছর ও ১০ বছর মেয়াদী হয়। ডেলিভারীর ক্ষেত্রে ৩ ধরনের ডেলিভারী সুবিধা রয়েছে যেমন,

  • Regular -সাধারণ
  • Express – জরুরী
  • Super Express – অতি জরুরী
নিচের লিংক থেকে জেনে নিন ই পাসপোর্টের ফি’র পরিমাণ

অনলাইনে ই পাসপোর্ট আবেদন করার নিয়ম

আপনি যদি ই পাসপোর্ট করতে চান বা আপনার এমআরপি পাসপোর্ট নবায়ন করে ই পাসপোর্ট নিতে চান, ঘরে বসেই অনলাইনে আপনি পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে পারেন।

মোবাইল বা কম্পিউটার দিয়ে কোন দালাল বা ব্যক্তির সহযোগিতা ছাড়াই নিজেই ই পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

কিভাবে অনলাইনে পাসপোর্ট আবেদন ফরম পূরণ করবেন, তা বিস্তারিত দেখুন নিচের লিংকে।

ঘরে বসে ই পাসপোর্ট ফি জমা দেয়ার পদ্ধতি

বর্তমানে ই পাসপোর্ট ফি জমা দেয়ার একমাত্র পদ্ধতি হচ্ছে এ চালান। বিভিন্ন ব্যাংক থেকে এ চালানের মাধ্যমে পাসপোর্ট ফি জমা দেয়া যায়।

তাছাড়া আপনি নিজেই ঘরে বসে বিকাশ, রকেট বা অনলাইন ব্যাংকিং থেকে এ চালানের মাধ্যমে পাসপোর্ট ফি জমা দিতে পারবেন। এতে আপনার সময়, শ্রম ও হয়রানি থেকে বাঁচবেন।

পাসপোর্ট হয়েছে কিনা | ই পাসপোর্ট চেক করার নিয়ম

পাসপোর্ট এনরোলমেন্টের পর পাসপোর্টের বর্তমান অবস্থা কি, পাসপোর্ট হয়েছে কিনা এসব অনলাইন থেকেই চেক করতে পারবেন।

প্রথমে E Passport ওয়েবসাইটে গিয়ে, CHECK STATUS মেন্যুতে ক্লিক করে, আপনার অনলাইন রেজিস্ট্রেশন আইডি বা অ্যাপ্লিকেশন আইডি দিন। আপনার জন্মতারিখ লিখুন এবং I am human ক্যাপচাতে ক্লিক করে ক্যাপচা পূরণ করুন। সবশেষে Check বাটনে ক্লিক করে আপনার পাসপোর্টের সর্বশেষ অবস্থা দেখুন।

অনলাইনে পাসপোর্ট চেক করার পর পাসপোর্টের স্ট্যাটাসে দেখবেন। বিভিন্ন স্ট্যাটাস রয়েছে যেমন, Enrollment in process, Pending for Final Approval, Pending in Print Queue ইত্যাদি। এসব স্ট্যাটাস মেসেজের অর্থ এবং ব্যাখ্যা জানতে পড়ুন- পাসপোর্ট স্ট্যাটাস ডিটেলস