জন্ম নিবন্ধন যাচাই | জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড ২০২২

অনলাইনে আপনার জন্ম নিবন্ধন যাচাই করুন এবং জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করুন খুব সহজ প্রক্রিয়ায়

এই পোস্টে আলোচনা করা হয়েছে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই ও জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করা নিয়ে। অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন চেক (jonmo nibondhon jachai) করা বা জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে এই পোস্টটি অবশ্যই আপনার উপকারে আসবে।

নাম ও জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

অনলাইনে নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন চেক করা যায় না। শুধুমাত্র জন্ম তারিখ ও জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই Online Birth Certificate Check করতে পারবেন।

এজন্য প্রথমে জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই ওয়েবসাইট লিংক- everify.bdris.gov.bd ভিজিট করুন। তারপর, আপনার ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন ও জন্ম তারিখ দিয়ে সার্চ করলে আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্য দেখতে পারবেন।

যদি আপনি চান, আমি আমার জন্ম নিবন্ধন দেখব। আপনি অনলাইনেই তা দেখতে পারবেন।

বাংলাদেশের প্রত্যেক নাগরিকের জন্ম নিবন্ধন তথ্য অনলাইনে দেখা যায়। এটা দেখার জন্য অবশ্যই ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ প্রয়োজন হবে।

যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বর ১৬ ডিজিটের হয় এটি ১৭ ডিজিটে রুপান্তর করতে হবে। পড়ুন- কিভাবে ১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন ১৭ ডিজিট করবেন

আমাদের অনেকে যারা প্রথম দিকে নিবন্ধন করেছিলাম, তাদের জন্ম সনদটি হাতে লেখা ছিল। ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা ও সিটি কর্পোরেশনে রেজিষ্টার বইতে আমাদের তথ্যসমূহ লিপিবদ্ধ ছিল।

পরবর্তীতে এসকল তথ্য অনলাইন ডাটাবেইজে আনা হয়। তখন থেকে জন্ম নিবন্ধন সনদকে ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন (Digital Birth Registration Certificate) বা অনলাইন জন্ম নিবন্ধন সনদ বলা হয়।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম – Jonmo Nibondhon Check

Birth Registration Online – জন্ম নিবন্ধন অনলাইন করা আছে কিনা (jonmo tarik diye nibondon bair kora) দেখার উপায় এখানে দেখে নিন। Birth Certificate Online Verify বা অনলাইনে জন্ম সনদ যাচাই করণ পদ্ধতি খুবই সহজ। যদি আপনার কম্পিউটার না থাকে, আপনি চাইলে মোবাইলে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন।

Time needed: 3 minutes.

জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে নিচের দেখানো ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

  1. জন্ম নিবন্ধন যাচাইকরণ Website ভিজিট করুন

    ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন কার্ড যাচাই করতে, আপনার মোবাইলের গুগল ক্রোম App টি ওপেন করুন। অনলাইনে বার্থ সার্টিফিকেট ভেরিফাই করতে online BRIS ওয়েবসাইট everify.bdris.gov.bd (জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক apps) ভিজিট করুন। উক্ত সাইটে ভিজিট করার পর নিচের মত একটি পেইজ পাবেন। এখানে ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন চেক jonmo sonod check করতে পারবেন।
    জন্ম নিবন্ধন যাচাই

  2. জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ লিখুন

    প্রথমে আপনার ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন নম্বরটি লিখুন (উদাহরণ- 19860915428117351)। Date of Birth এই বক্সে জন্ম তারিখ লিখুন এই ফরমেটে জন্ম নিবন্ধন যাচাই YYYY MM DD

  3. Captcha পূরণ করুন এবং সার্চ করুন

    ওয়েবসাইট ব্যবহারকারী মানুষ (Human) কিনা চেক করার জন্য একটি গাণিতিক প্রশ্ন বা ক্যাপচা দেওয়া হয়। এটির সঠিক উত্তরটি নিচের বক্সে লিখে Search বাটনে ক্লিক করুন। যদি আপনার জন্ম নিবন্ধনটি ডিজিটাল হয় এবং অনলাইন ডেটাবেইজে থাকে, তাহলে নিচের মত একটি পেইজে জন্ম নিবন্ধন তথ্য দেখতে পাবেন।
    জন্ম নিবন্ধন যাচাই কপি

আশা করি আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্য যাচাই করতে পেরেছেন এই পেইজটি হচ্ছে জন্ম নিবন্ধন যাচাই কপি।  বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমাদের তথ্যের নিশ্চয়তার জন্য জন্ম নিবন্ধনের ভেরিফিকেশন কপি প্রয়োজন হতে পারে। আপনি এটি প্রিন্ট করে ব্যবহার করতে পারেন।

নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই

Birth certificate online verification- নাম দিয়ে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার সুযোগ শুধুমাত্র ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা বা সিটি কর্পোরেশনেই করা যায়। সাধারণ জনগণের জন্য অনলাইনে নাম দিয়ে জন্ম সনদ যাচাই করার সুযোগ নেই।

জন্ম নিবন্ধন হারিয়ে গেলে এবং আপনার নিবন্ধন নম্বর জানা না থাকে, সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদ থেকে আপনার নাম দিয়ে সার্চ করে নিবন্ধন নম্বরটি জেনে নিতে পারেন।

ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন যাচাই – Online Birth Certificate Check

বিভিন্ন প্রয়োজনে অনেক সময় অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল কিনা যাচাই (online birth certificate check) করার প্রয়োজন হতে পারে।

কারো জন্ম নিবন্ধন তথ্য সঠিক কিনা বা জন্ম নিবন্ধন সনদ আসল কিনা তা যাচাই করে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই কপি (Jonmo Nibondhon Online Check Bangladesh) ডাউনলোড করতে পারবেন।

তবে যদি আপনার ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন নাম্বার ও জন্ম তারিখ দিয়ে সার্চ করার পরও No Record Found মেসেজ আসে, এর ২টি কারণ হতে পারে।

১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন যাচাই

১৬ ডিজিটের জন্য নিবন্ধন যাচাই করার জন্য নিবন্ধন নম্বরের শেষ ৫ ডিজিটের পূর্বে একটি (0) যুক্ত করে ১৭ ডিজিট করতে হবে। বিস্তারিত জানতে পড়ুন- জন্ম নিবন্ধন ১৬ ডিজিট থেকে ১৭ ডিজিট করার নিয়ম

পূর্বে জন্ম নিবন্ধনগুলো প্রথমে হাতে লেখা ও পরে অনলাইন ডাটাবেইজে নেয়া হয়। হাতে লেখা জন্ম নিবন্ধনগুলো ১৩/১৬ ডিজিটের ছিল। বর্তমানে জনসংখ্যা বৃদ্ধির পরিমাণ মাথা রেখে এটিকে ১৭ ডিজিটে রুপান্তর করা হয়।

তাছাড়া নিবন্ধন তথ্যসমূহ সম্পূর্ণ অনলাইন বেইজড করা হয়েছে। তাই যদি আপনার নিবন্ধন নম্বর ১৬ ডিজিট হয়ে থাকে, এর ১৭ ডিজিট নম্বর ও আপডেটেড ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন কার্ড সংগ্রহ করে নিন।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন তথ্য না পাওয়ার কারণ

১ম সম্ভাব্য কারণ হতে পারে, আপনার জন্ম 01/01/2001 এর পূর্বে এবং আপনার জন্ম নিবন্ধনটি হাতে লেখা যেটি অনলাইন ডাটাবেইজে অন্তর্ভুক্ত হয়নি

২য় কারণটি হতে পারে, আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বর ভুল আছে বা জন্মতারিখ ও নিবন্ধন নম্বর এই ২টির মধ্যে কোথায় গরমিল হচ্ছে।

এ সমস্যা সমাধানের উপায় হলো, আপনাকে নতুনভাবে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে হবে। আরো জানতে পড়ুন- জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে না থাকলে যা করবেন

আশা করি আপনার সমস্যা ১ কার্যদিবসের মধ্যেই সমাধান হয়ে যাবে।

শুধুমাত্র জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম তথ্য যাচাই করতে পারবেন। মোবাইলে জন্ম নিবন্ধন চেক করার জন্য জন্ম নিবন্ধন ওয়েবসাইট ক্লিক করুন।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড 2022

যদি উপরের দেখানো নিয়মে আপনার জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন চেক করতে পারেন, তাহলে বুঝতে পারবেন আপনার জন্ম নিবন্ধনটি ডিজিটাল। আপনার ইউনিয়ন, পৌরসভা বা সিটি কর্পোরেশন অফিস থেকে Digital copy of birth certificate সংগ্রহ করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করার জন্য উপরের ছবিটি আপনার স্ক্রিনে আসার পর আপনার কম্পিউটার থেকে প্রিন্ট কমান্ড (ctrl+P) দিয়ে Print to PDF সিলেক্ট করে PDF File হিসেবে সেইভ করতে পারেন।

যদি কম্পিউটারে Print to PDF অপশন না থাকে দেখুন কিভাবে কম্পিউটারে ডকুমেন্টকে PDF File তৈরি করবেন।

অথবা আপনার প্রিন্টার থাকলে, আপনি জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই কপিটি প্রিন্ট করে নিতে পারেন এবং ভবিষ্যতের জন্য সংরক্ষণ করতে পারেন। এছাড়া Birth Registration online copy download- জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কপি ডাউনলোড করার আলাদা কোনো উপায় নেই এখন পর্যন্ত।

জন্ম নিবন্ধন তথ্যে ভুল থাকলে সংশোধন কিভাবে করবেন

অনলাইনে যাচাই করার পর যদি দেখতে পান আপনার নিবন্ধন সনদে কোন তথ্যে ভুল আছে, অতিসত্বর তা সংশোধনের জন্য আবেদন করে সংশোধন করিয়ে নেন। কারণ জন্ম নিবন্ধন সনদে ভুল থাকলে তা পরবর্তীতে বিভিন্ন সমস্যার সৃষ্টি করতে পারে।

বর্তমানে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করা অনেক কঠিন ও ঝামেলাপূর্ণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে, আপনি অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধন করার আবেদন করতে পারেন। 

জন্ম নিবন্ধন সংশোধন যাচাই

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন সংশোধনের আবেদন করার অবশ্যই আবেদনের কপি ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিবন্ধকের কার্যালয়ে জমা দিতে হয়। কাগজপত্র যাচাইয়ের পরই আপনার তথ্য সংশোধন করা হবে।

সংশোধন হয়েছে কিনা তা যাচাই করতে পারবেন online BRIS ওয়েবসাইট থেকেই। কিভাবে করবেন?

সাধারণভাবে জন্ম নিবন্ধন চেক করার মতই- everify.bdris.gov.bd এ ভিজিট করবেন। জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ দিয়ে চেক করতে পারবেন। সংশোধন হয়ে থাকলে সংশোধিত তথ্যই স্ক্রীনে দেখতে পাবেন। আপনি চাইলে মোবাইলেও এটি চেক করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন সংক্রান্ত আরো বিভিন্ন টিপস, পরামর্শ ও তথ্য জানতে পড়ুন- জন্ম নিবন্ধন

জন্ম নিবন্ধন সংক্রান্ত প্রশ্ন ও উত্তর

অনলাইন জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম কি?

জন্ম নিবন্ধন যাচাই করণের জন্য everify.bdris.gov.bd তে ভিজিট করে ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন চেক করতে পারবেন।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন কিভাবে দেখব?

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন দেখার জন্য আপনার ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ দিয়ে everify.bdris.gov.bd এ যাচাই করতে হবে। তথ্য সঠিক থাকলে আপনার নিবন্ধন তথ্য স্ক্রীনে দেখতে পাবেন।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই অ্যাপস কোনটি?

ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন যাচাইয়ের নতুন apps/ সার্ভার হচ্ছে everify.bdris.gov.bd

জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে না থাকলে কি করতে হবে?

জন্ম নিবন্ধন তথ্য অনলাইনে পাওয়া না গেলে, আপনাকে প্রথমেই নিশ্চিত হতে হবে যে, আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বরটি সঠিক এবং ১৭ ডিজিট। নিবন্ধন নম্বরের প্রথম ৪ ডিজিট আপনার জন্ম সাল হবে। সঠিক জন্ম নিবন্ধন নম্বর জানার জন্য আপনার ইউনিয়ন পরিষদ/ পৌরসভা/ সিটি কর্পোরেশন কার্যালয়ে যোগাযোগ করুন। এরপরও পাওয়া না গেলে নতুন জন্ম নিবন্ধন আবেদন করতে হবে। বিস্তারিত জানতে পড়ুন- জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে না থাকলে কি করতে হবে

জন্ম নিবন্ধন ভুল হলে করণীয় কি?

জন্ম নিবন্ধনে কোন ভুল দেখা গেলে, আপনি তা সংশোধনের জন্য অনলাইনে আবেদন করুন। আবেদনের ক্ষেত্রে অবশ্যই প্রয়োজনীয় প্রমাণপত্র দাখিল করতে হবে। অনলাইনে সংশোধন করার নিয়ম জানতে পড়ুন জন্ম নিবন্ধন সংশোধন

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন কিনা কিভাবে বুঝবো?

অনলাইনে 17 ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও জন্ম তারিখ দিয়ে নিবন্ধন যাচাই করার পর, আপনার তথ্য পাওয়া গেলে বুঝবেন আপনার জন্ম নিবন্ধন অনলাইন।

জন্ম নিবন্ধন নিয়ে আরো তথ্য

  1. অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন ফরম পূরণ করার নিয়ম
  2. জন্ম নিবন্ধন সংশোধন
  3. জন্ম নিবন্ধন বাংলা থেকে ইংরেজি
  4. জন্ম নিবন্ধন অনলাইনে না থাকলে কি করতে হবে
  5. জন্ম নিবন্ধন হারিয়ে গেলে করণীয়
  6. জন্ম নিবন্ধন প্রতিলিপির জন্য আবেদন
  7. জন্ম নিবন্ধন নম্বর ১৬ ডিজিট থেকে ১৭ ডিজিট করার নিয়ম

Similar Posts

9 Comments

    1. শুধু মাত্র জন্ম তারিখ দিয়ে জন্ম নিবন্ধন এর তথ্য পাওয়া যাবে কি না গেলে কিভাবে যদি কেউ যানেন তাহলে খুব উপকৃত হবো।

  1. আপনি যে ইউনিয়ন পরিষদ বা পৌরসভা অথবা সিটি কর্পোরেশন থেকে জন্ম নিবন্ধন করেছিলেন শুধুমাত্র সেখান থেকেই ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন কপি পেতে পারেন। অন্য কোথাও এটি পাবেন না। তবে অনলাইন থেকে শুধু ভেরিফিকেশন কপি নিতে পারবেন।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।