ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

ডাচ বাংলা ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে চান? জানুন একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে এবং একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে বিস্তারিত সকল তথ্য।

বাংলাদেশের জনপ্রিয় ব্যাংকিং সেবা প্রদানকারী বেসরকারি ব্যাংক গুলোর মধ্যে ডাচ বাংলা ব্যাংক অন্যতম। ডাচ বাংলা ব্যাংকে নিরাপত্তার সাথে লেনদেন করা সম্ভব। ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম এবং এই ব্যাংকের সেবা সম্পর্কে বিস্তারিত এই লেখাটিতে আলোচনা করা হয়েছে।

বাংলাদেশের ব্যাংকিং খাতে ডাচ বাংলা ব্যাংক খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডের যৌথ উদ্যোগে ১৯৯৬ সালে এই ব্যাংকের যাত্রা শুরু হয়। এবং পরবর্তীতে দেশের সর্ব বৃহত এটিএম নেটওর্য়াক হিসেবে পরিচিতি লাভ করে।

ব্যাংকিং কার্যক্রম এর দিক থেকে বাংলাদেশ ডাচ বাংলা ব্যাংক লিমিটেড (DBBL) সম্পূর্ণ নিরাপদ। গ্রাহকরা ডাচ-বাংলা ব্যাংকের সকল ব্যাংকিং কার্যক্রম ঘরে বসে সম্পূর্ণ করতে পারবে। ডাচ বাংলা ব্যাংক সম্পর্কিত তথ্যগুলো বিস্তারিত বর্ণনা করা হলো।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

ডাচ বাংলা ব্যাংকে একাউন্ট খোলার জন্য আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি, ২ কপি ছবি, নমিনির জাতীয় পরিচয়পত্র ও ১ কপি ছবিসহ নিকটস্থ ডাচ বাংলা ব্যাংকের শাখা অথবা ফাস্ট ট্র্যাক অফিসে যান। একাউন্ট খোলার ফরম পূরণ করে কাগজপত্র ও প্রাথমিক ডিপোজিট জমা দিয়ে ব্যাংক একাউন্ট খুলতে পারবেন।

Account Opening Form পূরণ করে জমা দেয়ার পর, দ্বায়িত্বরত অফিসার আপনার একাউন্ট খুলে দিবেন। এরপর আপনাকে ব্যাংকের নুন্যতম জমার পরিমাণ ক্যাশ কাউন্টারে জমা দিয়ে Account সচল করতে হবে।

ডাচ-বাংলা ব্যাংকে একাউন্ট খোলার জন্য একজন সুপারিশ কারি প্রয়োজন। DBBL ব্যাংকের যেকোনো একাউন্ট হোল্ডার সুপারিশকারী হিসেবে বিবেচিত হবে। এক্ষেত্রে ব্যাংক কর্মকর্তারা আপনাকে সহযোগিতা করতে পারেন, যদি আপনার পরিচিত কোন সুপারিশকারী না থাকে।

তবে ডাচ বাংলা ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট করার আগে অবশ্যই এই ব্যাংক সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হবে এবং ব্যাংকে একাউন্ট খোলার আগে আপনি কোন ধরনের অ্যাকাউন্ট খুলতে চান সেটি সিলেক্ট করতে হবে। সাধারণত ডাচ-বাংলা ব্যাংকে ৭ ধরনের একাউন্ট খোলা যায়।

AccountsAccount TypeMinimum Balance
Savings Deposit Account-StandardSaving500 Tk
Savings Deposit Plus AccountSaving5,000 Tk
Excel Savings AccountSaving500 Tk
DBBL School Savers AccountStudent Account100 Tk
Interest Free Savings Deposit AccountSaving5,000 Tk
Current Deposit AccountCurrent A/C1,000 Tk
Special Notice Deposit AccountFixed Deposit2,000 Tk

ডাচ বাংলা ব্যাংকে সেভিংস একাউন্ট যে কেউ খুলতে পারবে, তবে ‍Student শুধুমাত্র স্টুডেন্টরা খুলতে পারবে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট খোলার নিয়ম

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট খোলার জন্য আপনার প্রয়োজন হবে NID, ২ কপি ছবি, নমিনির NID ও ১ কপি ছবি। এগুলো সহ নিকটস্থ ডাচ বাংলা ব্যাংকের শাখা অথবা ফাস্ট ট্র্যাক অফিসে যান। একাউন্ট খোলার ফরম পূরণ করে কাগজপত্র ও প্রাথমিক ডিপোজিট জমা দিয়ে ব্যাংক একাউন্ট খুলতে পারবেন।

একাউন্ট খোলার জন্য ব্যাংকের শাখা, ফাস্ট ট্র্যাক বা এজেন্ট ব্যাংকিং শাখায় গিয়ে Account Opening Form সংগ্রহ করতে হবে। তারপর সঠিক তথ্য দিয়েফর্মটি পূরণ করে নিকটস্থ ডাচ বাংলা ব্যাংকের শাখায় জমা দিতে হবে।

দ্বায়িত্বরত অফিসার আপনার একাউন্ট খুলে দেওয়ার পর আপনাকে প্রাথমিক জমা বা নুন্যতম জমার পরিমাণ ক্যাশ কাউন্টারে জমা দিতে হবে। একাউন্ট চালু হওয়ার ২-১ দিনের মধ্যে আপনাকে একটি ATM কার্ড প্রদান করা হবে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে

সেভিংস অ্যাকাউন্ট খোলার ফরম পূরণের সময় কিছু গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্টস এর তথ্য প্রয়োজন হবে এবং ফর্ম এর সাথে কিছু  ডকুমেন্ট সংযুক্ত করার প্রয়োজন হতে পারে। সেভিংস অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টসগুলো হলোঃ

  • জাতীয় পরিচয় পত্রের কপি।
  • বয়স ১৮ বছরের বেশি হতে হবে।
  • পাসপোর্ট সাইজের সদ্যতোলা ৪ কপি রঙিন ছবি। 
  • নমিনির ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি এবং ২ কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি।
  • নুন্যতম জমার পরিমাণ ৫০০ টাকা।
  • ইউটিলিটি বিলের ফটোকপি ( প্রয়োজন হতে পারে) 
  • একটি সুপারিশকারী একাউন্ট (DBBL ব্যাংকে একাউন্ট আছে এমন একজন অ্যাকাউন্ট হোল্ডার এর সুপারিশ)
  • ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে ট্রেড লাইসেন্স প্রয়োজন হবে।

উক্ত ডকুমেন্টসগুলো দিয়ে ডাচ-বাংলা ব্যাংকে খুব সহজে একটি সেভিংস একাউন্ট ওপেন করতে পারবেন।

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট এর সুবিধা

  • খুব সহজেই সেভিংস একাউন্টে চেক ইস্যু।
  • সেভিংস একাউন্টে আপনি ডেবিট কার্ড অথবা ক্রেডিট কার্ড গ্রহণ করতে পারবেন।
  • ব্যাংকের অন্য যেকোনো ব্রাঞ্চে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন।
  • ইন্টারনেট ব্যাংকিং (i-banking) এবং এসএমএস ব্যাংকিং সুবিধা।
  • ডিজিটাল ব্যাংকিং সেবা।
  • ডাচ বাংলা ব্যাংক থেকে ঋণ গ্রহণ।
  • DPS খুলতে পারবেন।
  • লিমিটেড ও আনলিমিটেড লেনদেন। 

ডাচ বাংলা ব্যাংকে একাউন্ট খোলার ফরম 

ডাচ বাংলা ব্যাংকে যেকোনো ধরনের একাউন্ট খোলার জন্য অবশ্যই একটি ফরম সংগ্রহ করতে হবে। আপনারা চাইলে নিকটস্থ ব্রাঞ্চ এ গিয়ে এই ফর্মটি সংগ্রহ করতে পারেন অথবা ডাচ-বাংলা ব্যাংকের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে ফরমটি ডাউনলোড করে নিতে পারেন। 

DBBL ব্যাংকের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে যেকোনো ফরম ডাউনলোডের জন্য Download Form এখানে ক্লিক করুন। এখান থেকে ফরমটি পিডিএফ ফাইল হিসেবে ডাউনলোড করে পরবর্তীতে এটিকে প্রিন্ট করে ব্যবহার করতে পারবেন।

ডাচ বাংলা ব্যাংক স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম 

ডাচ বাংলা ব্যাংকে স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার জন্য একইভাবে নিকটস্থ DBBL ব্যাংকের যেকোনো ব্রাঞ্চ থেকে একটি স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার ফরম সংগ্রহ করে নিবেন। এবং প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো প্রদান করে উক্ত ফর্মটি পূরণ করে ব্যাংকের শাখায় জমা দিলে কিছুক্ষণের মধ্যে আপনার স্টুডেন্ট একাউন্টটি ওপেন হয়ে যাবে। 

এবং ব্যাংক থেকে টাকা উঠানোর জন্য একটি ইনস্ট্যান্ট ATM কার্ড প্রদান করা হবে। এবং পরবর্তীতে আপনি ব্যাংক থেকে চেক বই সংগ্রহ করে নিতে পারবেন। সাধারণত ডাচ বাংলা ব্যাংকের স্টুডেন্ট একাউন্ট শুধুমাত্র ছাত্র-ছাত্রীরা খুলতে পারবে। ছাত্র-ছাত্রী ব্যতীত অন্য কেউ ডাচ বাংলা ব্যাংকের স্টুডেন্ট একাউন্ট কেউ খুলতে পারবে না। 

স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস 

  • জাতীয় পরিচয় পত্র অথবা জন্ম নিবন্ধন কপি
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের Student ID Card
  • পাসপোর্ট সাইজের ২ কপি রঙিন ছবি (সদ্য তোলা)
  • নমিনির ছবি এবং ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য ( প্রয়োজন হতে পারে)
  • আবেদনকারীর বয়স ১৮ বছরের কম হলে সেক্ষেত্র তার গার্ডিয়ানের জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি ও ছবি।
  • একটি সুপারিশকারী একাউন্ট (DBBL ব্যাংকে একাউন্ট আছে এমন একজন অ্যাকাউন্ট হোল্ডার এর সুপারিশ)
  • এবং একটি সচল মোবাইল নাম্বার।
  • প্রাথমিক পরীক্ষা অথবা উচ্চ মাধ্যমিক এবং এসএসসি পরীক্ষার সার্টিফিকেট (বিশেষ ক্ষেত্রে প্রয়োজন হতে পারে) 
  • লিমিটেশনের অধিক ট্রানজেকশন করার জন্য ব্যবসায়িক ট্রেড লাইসেন্স প্রয়োজন হতে পারে (এটা শুধুমাত্র ব্যবসায়ী স্টুডেন্টদের ক্ষেত্রে)

ডাচ বাংলা ব্যাংকে (DBBL) স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার পূর্বে অবশ্যই উক্ত ডকুমেন্টগুলো সংগ্রহ করে নিবেন। ডকুমেন্টগুলো সংগ্রহ করে নিকটস্থ ডাচ-বাংলা ব্যাংকের শাখায় গিয়ে একটি স্টুডেন্ট একাউন্ট ওপেন করতে পারবেন। 

স্টুডেন্ট একাউন্টের সুবিধা

ডাচ বাংলা ব্যাংকে স্টুডেন্ট একাউন্টের সুবিধাগুলো হলঃ

  • কোন ফি ছাড়াই ইনস্ট্যান্ট ATM কার্ড
  • ডাচ বাংলা ব্যাংকের যেকোন ব্রাঞ্চ থেকে টাকা জমা-উত্তোলন ও এটিএম বুথ থেকে খুব সহজেই টাকা উত্তোলন করতে পারবেন।
  • ডাচ বাংলা ব্যাংকের স্টুডেন্ট একাউন্ট আপনারা লাইফটাইম ব্যবহার করতে পারবেন।
  • Two-Factor Authentication (2FA) ব্যবহার করতে পারবেন।
  • ইন্টারনেট ব্যাংকিং (i-banking) ব্যবহার করতে পারবেন। 
  • রকেট একাউন্ট এর সাথে ডাচবাংলা ব্যাংকের স্টুডেন্ট একাউন্ট লিংক করতে পারবেন।
  • সেভিংস অ্যাকাউন্ট এর থেকে স্টুডেন্ট একাউন্টে ইন্টারেস্ট রেট একটু বেশি থাকে।

স্টুডেন্ট একাউন্টে ইন্টারেস্ট রেট সম্পর্কে সঠিক তথ্য প্রদান করা সম্ভব নয়। ডাচ বাংলা ব্যাংক এ হেল্পলাইন নাম্বারে যোগাযোগ করে এ সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন। এই লেখাটি শেষের দিকে ডাচবাংলা ব্যাংকের হেল্পলাইন নাম্বার দেওয়া আছে। 

স্টুডেন্ট একাউন্ট এর অসুবিধা 

ডাচ বাংলা ব্যাংকের স্টুডেন্ট একাউন্টের সুবিধা পাশাপাশি কিছু অসুবিধা রয়েছে। যেগুলো হলোঃ 

  • স্টুডেন্ট একাউন্টে কোন ধরনের চেক প্রদান করা হয় না (তবে নূতন আপডেটে চেক প্রদান করার ব্যবস্থা চালু হতে পারে)
  • লেনদেনের ক্ষেত্রে লিমিটেশন রয়েছে।
  • ৫,০০০ টাকার উপরে ব্যালেন্স থাকলে ৬ মাস অন্তর ১০০ টাকা মেইন্টেনেন্স ফি এবং ১৫ টাকা ভ্যাট প্রদান করতে হবে।
  • এক অর্থ বছরে আপনার একাউন্টের ব্যালেন্স একসাথে ১ লক্ষ টাকার বেশি হলে ১৫০ টাকা ফি প্রদান করতে হবে।

এছাড়া ডাচ বাংলা স্টুডেন্ট ব্যাংকে তেমন কোন অসুবিধা নেই। DBBL স্টুডেন্ট ব্যাংকে অসুবিধার থেকে সুবিধা অনেক বেশি।

ডাচ বাংলা ব্যাংকের ব্যালেন্স দেখার নিয়ম 

একটি ব্যাংকে একাউন্ট ওপেন করার পরে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ হল একাউন্টের ব্যালেন্স চেক। ডাচ বাংলা ব্যাংকে একাউন্ট ওপেন করার পরে আপনারা বিভিন্ন পদ্ধতিতে আপনাদের একাউন্টের ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন। 

  • ইন্টারনেট ব্যাংকিং এর মাধ্যমে।
  • ডাচ বাংলা ব্যাংকের অ্যাপস ব্যবহার করে।
  • নিকটস্থ এটিএম বুথের মাধ্যমে ATM কার্ড দিয়ে।
  • সরাসরি ব্যাংকে গিয়ে ম্যানেজারের সাথে যোগাযোগ করে। 
  • নেক্সাস-পে অ্যাপ অ্যাপসের মাধ্যমে।
  • মোবাইলে কোড ডায়ালের মাধ্যমে।

এছাড়াও বিভিন্ন পদ্ধতিতে আপনারা ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্টের ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন। 

ডাচ বাংলা ব্যাংকের কাস্টমার চার্জ 

ডাচ বাংলা ব্যাংকের সকল কাস্টমার চার্জ নিচের ছবিতে দেয়া আছে। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ যেকোনো সময় তাইলে এই চার্জ পরিবর্তন করতে পারে। বিভিন্ন পার্সোনাল একাউন্টের চার্জ সম্পর্কে জানতে দেখুন- ডাচ বাংলা ব্যাংকের কাস্টমার চার্জ

ডাচ বাংলা ব্যাংকের একাউন্ট চেক করার কোড 

ডাচ বাংলা ব্যাংকের একাউন্ট চেক করার কোড হল *322# এই কোড ব্যবহার করে ডাচ বাংলা ব্যাংকের সকল তথ্য এবং ব্যাংকের ব্যালেন্স সম্পর্কে জানতে পারবেন। ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চাইলে উপরের লেখাগুলো মনোযোগ দিয়ে দেখুন। 

ডাচ বাংলা ব্যাংকের হেল্পলাইন নাম্বার 

যেকোনো প্রয়োজনে অথবা ডাচ বাংলা ব্যাংক সম্পর্কিত যেকোনো তথ্যের জন্য যোগাযোগ করতে পারেন ডাচ-বাংলা ব্যাংকের হেল্পলাইন নাম্বারে। ডাচ বাংলা ব্যাংকের হেল্পলাইন নাম্বার হলো 16216

ডাচ-বাংলা ব্যাংক সম্পর্কিত যেকোনো তথ্যের জন্য উক্ত নাম্বারে যোগাযোগ করুন। প্রতি মিনিট ২:৩০ টাকা চার্জ প্রযোজ্য হবে। এই ব্যাংকের সেবা সম্পর্কে কোন কমপ্লেন জানাতে কল করুন (8802)-9511993 উক্ত নাম্বার। অথবা সরাসরি ই-মেইল করতে পারেন [email protected] এই ঠিকানায়।

FAQs

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট খুলতে কত টাকা লাগে?

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট খুলতে নুন্যতম জমার পরিমাণ ৫০০ টাকা। তবে একাউন্ট খুলতে নুন্যতম ১০০০ টাকা জমা দিতে হবে যার ৫০০ টাকা ব্লক থাকবে এবং অবশিষ্ঠ ৫০০ টাকা উত্তোলন বা ব্যবহার করতে পারবেন।

১৮ বছরের কম বয়সীদের কিভাবে ব্যাংক একাউন্ট খুলব?

১৮ বছরের কম বয়সীদের জন্য তার অভিভাবকের সাথে যৌথ একাউন্ট খুলতে হবে। তাদের যৌথ স্বাক্ষরে একাউন্টে লেনদেন পরিচালিত হবে। হিসাবগ্রহীতার বয়স ১৮ হলে তিনি একাই হিসাব পরিচালনা করতে পারবেন।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খুলতে কত টাকা লাগে?

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খুলতে সেভিং একাউন্টের ক্ষেত্রে নুন্যতম ৫০০ টাকা, স্টুডেন্ট একাউন্টের ক্ষেত্রে ১০০ টাকা এবং চলতি হিসাবের ক্ষেত্রে ১,০০০ টাকা জমা রাখতে হবে।

ক্যাটাগরিব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম
হোমপেইজEservicesbd

Please Subscribe our YouTube Channel

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।