মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত ২০২৪

আপনি যদি ওয়ার্ক ভিসায় মালয়েশিয়া যেতে চান তাহলে আপনার প্রশ্ন হতে পারে মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত? আসুন এই বিষয়ে বিস্তারিত জানি।

Advertisement

বাংলাদেশ থেকে অনেকেই বিভিন্ন শ্রমিক শ্রেনীর কাজে মালয়েশিয়া যায়। তাই ইলেকট্রিক, কন্সট্রাকশন, ফ্যাক্টরি, কৃষি ইত্যাদি মালয়েশিয়া কাজের বেসিক বেতন কত (Average Malaysian Salary) তার বিস্তারিত তথ্য নিয়েই আজকের আলোচনা।

মালয়েশিয়া বেসিক বেতন কত ২০২৪

বর্তমানে মালয়েশিয়া সরকার কর্তৃক মালয়েশিয়ায় কাজের সর্বনিম্ন বেতন ১২০০ রিংগিত নির্ধারন করা হয়েছে। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ২৮,০০০ টাকা। ১২০০ রিংগিত থেকে শুরু করে কাজের ধরন ও দক্ষতার উপর নির্ভর করে মালয়েশিয়া কাজের বেতন কম বেশি হয়।

Advertisement

মালয়েশিয়া ইলেকট্রিক কাজের বেতন কত

বর্তমানে মালয়েশিয়াতে ইলেকট্রিক কাজের বেতন হবে প্রায় ২০০০-৩০০০ রিংগিত। বাংলাদেশি টাকায় যা প্রায় ৪৫-৭০ হাজার টাকা পর্যন্ত। ইলেকট্রিক কাজ একটি দক্ষতাভিত্তিক কাজ। তাই এই কাজের পারিশ্রমিক ও বেশি পাওয়া যায়।

তবে উচ্চ পদের দক্ষ ইলেকট্রিশিয়ান দের বেতন ৩০০০-৫০০০ রিংগিত পর্যন্ত হয়ে থাকে।  মালয়েশিয়াতে ইলেকট্রিক কাজে উচ্চ বেতনে কাজ করতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে ইলেকট্রিক কাজ, নকশা প্রনয়ন ও বিভিন্ন প্রয়োজনীয় পার্টস/উপাদান সম্পর্কে দক্ষ হতে হবে।

আরও পড়তে পারেন- মালয়েশিয়া যেতে কত টাকা লাগে

এরকম দক্ষতা অর্জনের জন্য বাংলাদেশের সরকারি টিটিসি কেন্দ্রগুলো থেকে ৩ মাস এবং ৬ মাস মেয়াদী ইলেকট্রিক কাজের প্রশিক্ষন নিতে পারন।

Advertisement

মালয়েশিয়া কনস্ট্রাকশন কাজের বেতন কত

বর্তমানে মালয়েশিয়া তে কন্সট্রাকশন কাজের বেতন দেওয়া হয় ১৮০০- ২৫০০ রিংগিত পর্যন্ত। বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৪০,০০০- ৫৮,০০০ টাকা। সাধারনত যাদের ভিন্ন কোন কাজের অভিজ্ঞতা থাকে না তারাই কন্সট্রাকশন শ্রমিক হয়ে কাজ করে থাকে।

মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত

একজন দক্ষ কন্সট্রাকশন মিস্ত্রী ও ভালোভাবে রড বাধাইয়ের কাজ পারে এমন লোক ২,৫০০ রিংগিত বা তার বেশিও পেয়ে থাকে। সময়ের সাথে সাথে এ কাজের বেতন বৃদ্ধি পায়।

আরও পড়ুন- সরকারিভাবে মালয়েশিয়া যাওয়ার উপায়

মালয়েশিয়া ফ্যাক্টরি কাজের বেতন কত

মালয়েশিয়ায় সাধারন ফ্যাক্টরি শ্রমিকদের বর্তমানে বেতন ১,৭০০- ২,৫০০ রিংগিত প্রদান করা হয়। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৪০,০০০- ৫৮,০০০ টাকা পর্যন্ত। এছাড়াও ওভারটাইম কাজের সুযোগ রয়েছে। যার মাধ্যমে ৭০-৮০ হাজার টাকা মাসিক ইনকাম করা সম্ভব। ফ্যাক্টরিতে মালয়েশিয়া কাজের বেতন তা কর্মীর পদবি ও দক্ষতাভেদে ভিন্ন হয়।

Advertisement

অন্যদিকে, কোন প্রাতিষ্ঠানিক ডিগ্রী নিয়ে বা বড় কোন পোস্টে মালয়েশিয়ায় বিভিন্ন ফ্যাক্টরিতে কাজ করলে Malaysia Factory worker salary প্রায় ১ থেকে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বেতন হতে পারে।

আরও পড়ুন- পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে মালয়েশিয়া ভিসা চেক

মালয়েশিয়া ড্রাইভিং বেতন কত

মালয়েশিয়াতে একজন ড্রাইভারের বেতন হতে পারে প্রায় ৩৫০০ রিঙ্গিত যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ৮০ হাজার টাকা। মালয়েশিয়ায় ড্রাইভিং ভিসা পাওয়ার জন্য আপনার International Driving Permit (IDP) প্রয়োজন হবে।

মালয়েশিয়া কৃষি কাজের বেতন কত

মালয়েশিয়াতে একজন কৃষক শ্রমিককে সর্বনিম্ন ১,৩০০ রিংগিত বা ৩০,০০০ টাকা বেতন প্রদান করা হয়। বর্তমানে মালয়েশিয়াতে কৃষি কাজের চাহিদা অনেক বেশি। বাংলাদেশের বেকারত্ব সমস্যার সমাধানে অনেকেই মালয়েশিয়া গিয়ে প্রাথমিক ভাবে কৃষি কাজ করে থাকে।

Advertisement

কোন পূর্ব অভিজ্ঞতা ছাড়াই মালয়েশিয়াতে কৃষি কাজ করা যায়। কাজ করার সাথে সাথে অভিজ্ঞতা বৃদ্ধি পেলে ২,০০০ রিংগিত পর্যন্ত বেতন পাওয়া সম্ভব। এছাড়া বাংলাদেশের অনেকেই দীর্ঘদিন ধরে মালয়েশিয়াতে অবস্থান করার দরুন নিজেই কৃষিকাজ করে ব্যবসা করে অনেক বেশি উপার্জন করছেন।

উপরোক্ত শ্রমিক শ্রেনীর কাজগুলোর ক্ষেত্রে মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত তা জানতে পারলাম। এছাড়াও বিভিন্ন প্রাতিষ্ঠানিক চাকরির বেতন অনেক বেশি।

আরও পড়ুন- পাসপোর্ট নাম্বার দিয়ে মেডিকেল রিপোর্ট চেক

মালয়েশিয়া কোন কাজের বেতন কত

বর্তমানে বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ায় সবচেয়ে সহজে বেশি ইনকাম করছেন বিকাশ এজেন্ট, রিসেপশনিস্ট এবং ওয়েটার পদে কর্মরত প্রবাসীগন। মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত তা জেনে নিন।

ওয়েটারের বেতন

রেস্টুরেন্ট জব এর বেতন প্রায় ২০০০-২৫০০ রিংগিত। তবে উন্নত রেস্টুরেন্টে ভালো প্রাতিষ্ঠানিক ডিগ্রী নিয়ে ওয়েটার পদে কাজ করে মাসিক ১ লক্ষ থেকে ৪.৫ লক্ষ পর্যন্ত বেতন পাওয়া যায়।

আরও পড়ুন- সৌদি আরবে কোন কাজের চাহিদা বেশি

রিসেপশনিস্টের বেতন

বিভিন্ন কোম্পানি, প্রতিষ্ঠানের রিসেপশনিস্ট দের মাসিক বেতন ১-৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত। উচ্চশিক্ষা অর্জনের পাশাপাশি ভালো উপস্থিত জ্ঞান সম্পন্ন অনেকেই বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে এই পদে আবেদন করে চাকরি পান।

মোবাইল ব্যাংকিং ব্যবসা

অনেকেই মাসিক প্রায় ৫-১০ লক্ষ টাকা ইনকাম করছেন মোবাইল ব্যাংকিং করে। কিছু টাকা বিনিয়োগ করে নির্দিষ্ট বাংলাদেশি এজেন্ট এর মাধ্যমে বিকাশ,নগদ,রকেট,উপায় এর মাধ্যমে বিদেশি লোকদের টাকা লেনদেন করলে মাস শেষে বিকাশের এজেন্ট খরচ সহ সেই দেশে প্রাওত টাকা থেকে রেমিট্যান্সও সংগ্রহ করতে পারে বিকাশ এজেন্ট।

এছাড়াও আরও বিভিন্ন প্রাতিষ্ঠানিক চাকরি করে ভালো বেতন পাওয়া যায়, তবে তা অর্জন করা তূলনামূলক কঠিন।

FAQ’s

মালয়েশিয়া ড্রাইভিং বেতন কত?

মালয়েশিয়া দক্ষ ড্রাইভিং কাজের বেতন ভালো হয়ে থাকে। প্রাতিষ্ঠানিক ড্রাইভিং এর জন্য ৩০০০-৩৫০০ রিংগিত পর্যন্ত বেতন দেওয়া হয়।

মালয়েশিয়া কোম্পানি ভিসা বেতন কত?

প্রাথমিকভাবে মালয়েশিয়া কোম্পানি ভিসায় গেলে ১,৮০০ – ২,০০০ রিংগিত বেতন পাওয়া যায়। পাশাপাশি ওভারটাইম করে ইনকাম করা যায়। কোম্পানিতে অবস্থানের সময় ও দক্ষতা ভেদে পরবর্তীতে বেতন বাড়তে থাকে।

কত বছর বয়স হলে মালয়েশিয়া যাওয়া যায়?

ওয়ার্ক ভিসায় মালয়েশিয়া যেতে পাসপোর্ট অনুযায়ী সর্বনিম্ন ২১ বছর লাগে। এছাড়াও স্টুডেন্ট ভিসা যেতে ১৮ বছর লাগে। স্টুডেন্ট ভিসায় গিয়েও মালয়েশিয়াতে পার্টটাইম কাজ করা যায়।

শেষকথা

মালয়েশিয়া বিভিন্ন ভিসায় বেতন কম-বেশি হয়ে থাকে। আপনার ভিসার এজেন্ট বা এম্বাসি থেকে মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত তার সঠিক তথ্য যাচাই করে মালয়েশিয়া কাজের ভিসায় যাবেন। অনেক সময় বেশি বেতনের কথা বলে কম বেতনে মালয়েশিয়ার কাজে নিয়োগ দেওয়া হয়।

আজকের আলোচনার মূল বিষয় ছিলো – মালয়েশিয়া কাজের বেতন কত। পোস্ট সম্পর্কিত কোন প্রশ্ন থাকলে অবশ্যই কমেন্ট করে জানান। এরকম প্রয়োজনীয় তথ্য পেতে ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট, ধন্যবাদ।

Advertisement

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।