কৃষি ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

কৃষি ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে চান? জানুন একাউন্ট খোলার নিয়ম এবং কি কি কাগজপত্র লাগবে।

আপনি হয়তো কৃষি ব্যাংকে একাউন্ট করতে চান। তাই জানুন বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক নিয়ে সাধারণ কিছু তথ্য, একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে আপনার জানা উচিত। আমি শেয়ার করছি কৃষি ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম নিয়ে বিস্তারিত সকল তথ্য। আশা করি আপনার কাজে লাগবে।

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক বাংলাদেশের একটি বিশেষায়িত ব্যাংক। এটি ১০০% সরকারি মালিকানাধীন বিশেষায়িত ব্যাংক। এটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৭৩ সালে। বর্তমান বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের চেয়ারম্যান এমডি নাসিরুজ্জামান। বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের ১০৩৮টি অনলাইন শাখা রয়েছে এবং এর সদর দপ্তর মতিঝিল বাণিজ্যিক এলাকা ঢাকা, বাংলাদেশ।

আরও পড়ুন- বিশেষায়িত ব্যাংকের কাজ কি

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক এর উদ্দেশ্য

পৃথিবীতে সকল কিছুরই একটি উদ্দেশ্য বা লক্ষ্য থাকে ঠিক তেমনি বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক সৃষ্টির কিছু উদ্দেশ্য আছে।

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের উদ্দেশ্য গুলো হলো বাংলাদেশের কৃষকদের আর্থিক ভাবে সহায়তা করা, জনসাধারণের কাছে ব্যাংকিং সুবিধা পৌঁছে দেওয়া, খাদ্যে স্বয়ং-সম্পূর্ণতা নিশ্চিত করা, দারিদ্র বিমোচন ও কৃষিভিত্তিক শিল্পে ঋণ প্রদান করা। সুতরাং বলা যায় বাংলাদেশের কৃষি শিল্পকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক প্রতিষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ একটি কৃষি প্রধান দেশ। এদেশের উন্নয়নে কৃষির গুরুত্ব অপরিসীম এবং শতকরা ৮০ ভাগ লোক কৃষি কাজে নিয়োজিত। কৃষকদের সকল প্রকার সুযোগ সুবিধা অর্থাৎ অর্থনৈতিক ভাবে সমস্যা সমাধানের ক্ষেত্রে, কষ্ট কমিয়ে আনার উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক প্রতিষ্ঠিত হয়েছে।

কৃষকরা চাইলেই কম সময়ে অল্প মুনাফায় কৃষি ব্যাংক থেকে লোন নিতে পারে। আপনি বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক থেকে যে কোনো সুযোগ-সুবিধা নিতে চাইলে প্রথমে আপনার কৃষি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থাকা লাগবে। কৃষি ব্যাংক একাউন্ট  তৈরীর জন্য একাউন্ট তৈরিরনিয়ম ও সঠিক তথ্য জানতে হবে।

আরও পড়ুন- বাংলাদেশের বেসরকারি ব্যাংক কয়টি ও কি কি

কৃষি ব্যাংকের সুযোগ সুবিধা 

বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকে যে প্রকার সুযোগ-সুবিধা দিয়ে থাকে তা হলো,

  • চার্জ ফ্রি অনলাইন ব্যাংকিং
  • এসএমএস ব্যাংকিং
  • বৈদেশিক রেমিট্যান্স
  • Q Cash নেটওয়ার্কের আওতাভুক্ত এটিএম সেবা
  • আমানত সেবা- এফডিআর, ডাবল স্কি্‌ম, মাসিক ডিপোজিট স্কিম
  • ঋণ সেবা- শস্য ঋণ, কৃষি যন্ত্রপাতি ও দারিদ্র বিমোচন ঋণ।

এছাড়াও চিঠিপত্র আদান-প্রদান, পলিসি গাইডলাইন ও আইসিটি গাইড লাইন, তথ্য অধিকার  নিশ্চিত করে। 

কৃষি ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে কি কি কাগজপত্র লাগবে?

কৃষি ব্যাংক একাউন্ট করতে হলে অবশ্যই আপনার বয়স ১৮ এর বেশি হতে হবে। এছাড়া প্রয়োজন হবে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি, পাসপোর্ট সাইজের ২ কপি ছবি, নমির জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি ও ১ কপি ছবি এবং প্রাথমিক জমা হিসেবে নুন্যতম ১০০০ টাকা।

আমরা ব্যাংকে একাউন্ট তৈরি করি সাধারণত টাকা পয়সা লেনদেন করার জন্য। টাকার নিরাপত্তার জন্য কৃষি ব্যাংকে একাউন্ট তৈরি করতে কিছু কাগজ পত্র লাগে। প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র থাকলে আপনি কৃষি ব্যাংক একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।

ব্যাংক একাউন্ট করতে খুব বেশি কোন কাগজপত্র প্রয়োজন হয় না। প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ছাড়া কোনোভাবেই আপনি একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন না। আসুন তাহলে জেনে নিই কৃষি ব্যাংক একাউন্ট করতে যে কাগজপত্র লাগবে।

  1. কৃষি ব্যাংক একাউন্ট যার নামে তৈরি করা হবে তার ভোটার আইডি কার্ড প্রয়োজন হবে। যদি ভোটার আইডি কার্ড বা এনআইডি না থাকে সেক্ষেত্রে জন্ম নিবন্ধন / পাসপোর্ট / ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রয়োজন হবে।
  2. একাউন্ট করার জন্য প্রয়োজন হবে একজন নমিনির। নমিনির জাতীয় পরিচয়পত্র লাগবে।
  3. যার নামে অ্যাকাউন্ট তৈরি করা হবে তার দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি এবং ছবিগুলোকে অবশ্যই সত্যায়িত করে জমা দিতে হবে।
  4. নমিনির এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি এবং ছবিটি অবশ্যই যার একাউন্ট তিনি সত্যায়িত করে জমা দিতে হবে।
  5. প্রাথমিক জমা হিসেবে ১০০০ টাকা প্রয়োজন হবে। এই টাকা নেওয়া হবে যখন আপনি একাউন্ট তৈরি করতে যাবেন।

কৃষি ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

একাউন্ট তৈরি করার জন্য আপনার নিকটস্থ কৃষি ব্যাংক ব্রাঞ্চে যাবেন।সাথে  উপরে উল্লেখিত তথ্যাদি বা কাগজপত্র নিয়ে যাবেন। ব্যাংকে গিয়ে একাউন্ট তৈরির ফরম পূরণ করতে হবে। ফরম পূরণ করে জমা দিলে একাউন্ট তৈরি করা হয়ে যাবে।

১৮ বছরের কম বয়সীদের জন্য ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

আগে বলেছি যে ১৮ বছর এর কম বয়সীরা কৃষি ব্যাংক একাউন্ট তৈরি করতে পারবে না। তবে আপনি চাইলে অভিভাবক তত্ত্বাবধানে ১৮ বছর কম বয়সী ছেলে ও মেয়েদের জন্য বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক একাউন্ট তৈরি করতে পারবেন।

কৃষি ব্যাংক একাউন্ট চেক করার নিয়ম

কৃষি ব্যাংকের একাউন্ট চেক করার জন্য যে শাখায় একাউন্ট করেছেন সেই শাখায় একাউন্ট নাম্বার দিয়ে আপনার ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন। আপনার একাউন্টে SMS ব্যাংকিং সেবা চালু থাকলে প্রতিটি লেনদেনের তথ্য ব্যালেন্সের পরিমান SMS এর মাধ্যমে জানা যায়। এছাড়া, এটিএম কার্ড ব্যবহার করে বুথ থেকেও ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন।

কৃষি ব্যাংক লোন নেয়ার উপায়

কৃষি ব্যাংকের লোনের ভিন্ন ভিন্ন ক্যাটাগরি বা ধরণ রয়েছে, যেমন-কৃষি ঋণ, কৃষি যন্ত্রপাতি ঋণ, প্রাণিসম্পদ ঋণ, মৎস্য ঋণ।এসব ক্যাটাগরিতে আলাদা আলাদা শর্তমতে ঋণ প্রদান করা হয়।

কৃষি ব্যাংকে লোন নিতে হলে আপনার কিছু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র লাগবে। যেমন, এনআইডি কার্ডের ফটোকপি, পাসপোর্ট সাইজ ছবি, জমির পরিমাণ, পূর্বের ব্যাংক ডকুমেন্ট ইত্যাদি।

শেষ কথা

কৃষকদের সবারই বিশেষ করে একটি কৃষি ব্যাংক একাউন্ট থাকা বাঞ্ছনীয়। সুতরাং দেরি না করে উল্লেখিত নিয়মগুলো দেখে কৃষি ব্যাংকে আপনার একাউন্ট খুলে ফেলুন।

ব্যাংকিং সংক্রান্ত আরও তথ্য

Please Subscribe our YouTube Channel

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।