চালু হলো ২০২১-২০২২ অর্থবছরের অনলাইনে আয়কর রিটার্ন দাখিল

চালু হলো ২০২১-২০২২ অর্থবছরের আপডেটেড অনলাইনে আয়কর রিটার্ন (ই-রিটার্ন) দাখিলের প্রক্রিয়া। জানুন কোন ভুলগুলো করা যাবে না।

ই রিটার্ন ২০২১-২০২২ চালু

২০২১-২০২২ অর্থবছরের আয়কর রিটার্ন অনলাইনে দিতে পারবেন। আপনারা হয়তো জানেন অনলাইনে আয়কর রিটার্ন দাখিলের ওয়েবসাইটটি নতুন আইন ও আয়কর নির্দেশিকা ২০২১-২০২২ অনুযায়ী আপডেট করার জন্য প্রায় দীর্ঘ কয়েকমাস বন্ধ ছিল।

বর্তমানে আপডেট প্রক্রিয়া শেষে অনলাইনে আয়কর রিটার্ন দেয়ার সিস্টেমটি চালু করা হয়েছে। ফলে এখন থেকে নভেম্বর ৩০ তারিখের মধ্যে অনলাইনে রিটার্ন সাবমিট করতে পারবেন।

অনলাইনে রিটার্ন সাবমিট করতে যেসব সাবধানতা জরুরী

অনলাইনে ঘরে বসে সহজেই রিটার্ন জমা দেয়া ও হয়রানি না হওয়ার কারণে সকলেই অনলাইনে রিটার্ন দিতে চান। কিন্তু রিটার্ন দাখিলে অজ্ঞতাবশত কোন ভুল, গরমিল বা প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট আপলোড না করলে আপনার ফাইলটি নিরীক্ষা তালিকায় পড়তে পারে। আর আপনি পড়ে যেতে পারেন বাড়তি ঝামেলায়।

আপনাকে নোটিশ দেয়া হবে যদি আপনার ফাইলের কোন তথ্যে গরমিল, অসম্পূর্ণ থাকে বা কোন প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট আপলোড না করেন। তাই নিম্মোক্ত সতর্কতাগুলো অবশ্যই খেয়াল রাখবেন।

  • যেহেতু মাত্রই অনলাইন সিস্টেমটি আপডেট হয়েছে, এখনি তাড়াহুড়ো করে রিটার্ন জমা দেয়ার প্রয়োজন নেই। সিস্টেমে কোন সমস্যা বা ত্রটি থাকলে তা কয়েকদিনের মধ্যে সংশোধন করা হতে পারে। তাই ৫/৭ দিন অপেক্ষা করুন।
  • প্রতিবছরই অর্থ আইন, আয়কর বিধি ও আয়কর নির্দেশনা পরিবর্তন হয়। তাই আপনি যে অর্থবছরের আয়কর রিটার্ন দাখিল করবেন সে অর্থবছরের আয়কর নিদের্শনা ভালভাবে পড়ে ও বুঝে আয়কর রিটার্ন ফরম পূরণ করবেন। পড়তে পারেন- আয়কর নির্দেশনা ২০২১-২০২২
  • রিটার্ন দাখিলের ক্ষেত্রে যেসব আয়ের জন্য প্রয়োজনীয় প্রমাণ দেখাতে হবে, তা অবশ্যই দেখাবেন। যদি প্রয়োজনীয় কাগজ সাবমিট না করেন, আপনার ফাইল অডিটে আসতে পারে।
  • যেহেতু এখনো রিটার্ন দাখিলের অনেক সময় আছে, আপনার সকল করযোগ্য আয়, কর অব্যাহতিপ্রাপ্ত আয়, অগ্রিম প্রদান করা ট্যাক্স (যদি থাকে) ভালভাবে হিসাব নিকাশ করে, সময় নিয়ে রিটার্ন ফরম পূরণ করবেন। কোন তাড়াহুড়া করার প্রয়োজন নেই।
  • এলাকার কোন কম্পিউটার বা অনলাইন সেবার প্রতিষ্ঠানে আয়কর বিষয়ে অনভিজ্ঞ কারো মাধ্যমে আয়কর রিটার্ন দাখিল করবেন না।
  • ইউটিউব বা অনলাইনে কোন টিউটোরিয়ালের উপর সম্পূর্ণ নির্ভর করে, আপনার রিটার্ন দাখিল করবেন না। শুধুমাত্র শিক্ষামূলক উদ্দেশ্যে এসব ভিডিও বা টিউটোরিয়ালে রিটার্ন সাবমিট করার প্রক্রিয়াটি দেখানো হয়। যেহেতু আপনার সম্পদ, বিনিয়োগ, আয়-ব্যয়ের উপর নির্ভর করে রিটার্ন দিতে হবে, তাই এগুলো আপনাকেই হিসাব করে সঠিক তথ্য পূরণ করতে হবে।
  • আপনি আয়কর বিষয়ে ভাল না জানলে, এ বিষয়ে অভিজ্ঞ কোন ব্যাক্তি/কর প্রফেশনাল এর সহযোগিতা অবশ্যই নিবেন।

শেষ কথা

মনে রাখবেন আয়কর একটি জটিল ও ঝামেলাপূর্ণ বিষয়। যদি আপনার টিন সার্টিফিকেট থাকে আপনাকে অবশ্যই আয়কর রিটার্ন দিতে হবে। তাই আয়কর সম্পর্কে আপনার পরিপুর্ণ ধারণা থাকা দরকার। একজন করদাতার নিজের আয়কর নিজে দেয়ার মত যথেষ্ট জ্ঞান থাকা অবশ্যই উচিত।

এটি রকেট সাইন্সের মত কোন জটিল বিষয়ও না। আপনি কিছুদিন জানা শোনা করলেই এসব বুঝে যাবেন। এছাড়া এসব ঝামেলাপূর্ন কাজগুলো নিজে করা শিখুন, টিন সার্টিফিকেট একাউন্টের ইউজার-পাসওয়ার্ড, সকল ডকুমেন্ট নিজের কাছে সযত্নে রাখবেন।

সবশেষে বলব, যদি রিটার্ন দাখিল সম্পর্কে ভালভাবে না জানেন অভিজ্ঞ কর পেশাদারের সহযোগিতা নিন। না জেনে শর্ট-কাট বাঁচার জন্য কিছুই করবেন না। এতে ঝামেলা আরো বাড়তে পারে যদি কেন ভুল করেন।

আয়কর সংক্রান্ত আরও তথ্য

টিন রেজিস্ট্রেশনটিন সার্টিফিকেট ডাউনলোড
আয়কর রিটার্ন বাধ্যতামূলককাদের আয়কর রিটার্ন দিতে হবে
অনলাইনে রিটার্ন দাখিলের নিয়মঅনলাইনে আয়কর রিটার্ন দাখিল
নির্দেশিকাআয়কর নির্দেশিকা ২০২১-২০২২ PDF
কম আয়কর দেয়ার উপায়আয়কর রেয়াতের খাত সমূহ
আয়কর সংক্রান্ত সকল তথ্যআয়কর
হোমপেজHome

সকল আপডেট তথ্যের জন্য Facebook Page

Similar Posts

মন্তব্য করুন