১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট কারা পাবেন এবং কারা পাবেন না

বাংলাদেশে চালু হয়েছে ১০ বছর মেয়াদী ই পাসপোর্ট। জানুন কারা এই ১০ বছর মেয়াদী পাসপোর্ট কারা পাবেন এবং কারা পাবেন না।

আপনি হয়তো জানেন বিভিন্ন দেশের মত বাংলাদেশেও ই পাসপোর্ট কার্যক্রম চালু হয়েছে। ই পাসপোর্টের ক্ষেত্রে একজন নাগরিক সর্বোচ্চ ১০ বছর মেয়াদী ই পাসপোর্ট পেতে পারবেন। যা পূর্বে বিভিন্ন দেশে চালু ছিল। আসুন জানি কারা এই ১০ বছর মেয়াদী ই পাসপোর্ট পাবেন এবং কারা পাবেন না।

পূর্বে এমআরপি পাসপোর্ট (Machine Readable Passport) এর মেয়াদ সর্বোচ্চ ৫ বছর পর্যন্ত ছিল। অবশেষে ই পাসপোর্টে এর মেয়াদ ১০ বছর পর্যন্ত করা হয়েছে।

কিন্তু ১০ বছর মেয়াদী পাসপোর্ট সবাই পেতে পারবেন না। জানুন কারা ১০ বছর মেয়াদী ই পাসপোর্ট পাবেন।

১০ বছর মেয়াদি ই-পাসপোর্ট

১০ বছর মেয়াদী ই-পাসপোর্ট কারা পাবেন

বাংলাদেশের নাগরিক যাদের বয়স ১৮ বছর বা তার ঊর্দ্ধে এবং ৬৫ বছরের নিচে তারাই ১০ বছর মেয়াদী ই পাসপোর্ট পাবেন।

বর্তমানে বাংলাদেশে ই পাসপোর্টের ক্ষেত্রে নিম্মোক্ত ৪ ধরণের পাসপোর্ট পাওয়া যাচ্ছে।

  1. ৫ বছর মেয়াদী ৪৮ পৃষ্ঠা
  2. ৫ বছর মেয়াদী ৬৪ পৃষ্ঠা
  3. ১০ বছর মেয়াদী ৪৮ পৃষ্ঠা
  4. ১০ বছর মেয়াদী ৬৪ পৃষ্ঠা

যাদের বয়স ১৮ বছরের উর্দ্ধে এবং ৬৫ বছরের নিম্মে, তারা যে কোন ধরণের ই পাসপোর্টের আবেদন করতে পারবেন।

যারা ১০ বছর মেয়াদী ই-পাসপোর্ট পাবেন না

বাংলাদেশে যারা ১০ বছর মেয়াদী ই পাসপোর্ট পাবেন না তারা হলেন,

  • ১৮ বছরের কম এবং ৬৫ বছরের উর্দ্ধের সকল নাগরিক
  • সরকারি চাকরীজীবি
  • সরকারি চাকরীজীবির উপর নির্ভরশীল ব্যক্তি বা শিশু

এক্ষেত্রে তারা শুধুমাত্র ৫ বছর মেয়াদী ৪৮ পৃষ্ঠার পাসপোর্ট পাবেন।

সরকারি চাকরীজীবিদের ই পাসপোর্ট করার ক্ষেত্রে শুধুমাত্র ৫ বছর মেয়াদী এবং সাধারণ ডেলিভারীতে পাসপোর্টের আবেদন করতে পারবেন। তবে, তারা সাধারণ পাসপোর্ট আবেদন করেও জরুরী সুবিধা পাবেন।

এটি সরকারি চাকরীজীবিদের জন্য একটি সুবিধা যে, সাধারণ পাসপোর্টের ফি দিয়ে জরুরী পাসপোর্ট পেতে পারবেন।

১০ বছর মেয়াদী পাসপোর্ট না পাওয়ার কারণ

১৮ বছর বয়সের কম এবং ৬৫ বছরের উর্দ্ধের নাগরিকদের ১০ বছর মেয়াদী পাসপোর্ট না দেয়ার কারণ রয়েছে। এর কারণ হচ্ছে ছবি ও শারীরিক পরিবর্তন।

যাদের বয়স ১৮ বছরের কম তাদের চেহারা ও দৈহিক পরিবর্তন খুব দ্রুত হতে থাকে। এই কারণেই তাদের ১০ বছর মেয়াদের পাসপোর্ট ইস্যু করা হয় না।

ধরুন, একজন ৫ বছর বয়সী শিশু ১০ বছর মেয়াদী ই পাসপোর্ট করল। কিন্তু ৫/৭ বছর পরেই এই শিশু চেহারা ও শারীরিক পরিবর্তন হবে। তখন বাস্তবে এবং পাসপোর্টের ছবির সাথে কোন মিল থাকবে না।

এর ফলে বিভিন্ন দেশে ভ্রমণের জন্য ভিসা পেতে এবং ইমিগ্রেশনে পরিচয় নিশ্চিত করতে সমস্যা দেখা দিবে।

১০ বছর মেয়াদী ই-পাসপোর্ট ফি

১০ বছর মেয়াদী ২ ধরণের পাসপোর্ট রয়েছে এবং ডেলিভারীর ক্ষেত্রে সাধারণ ও জরুরী ২টি ধরণ রয়েছে। পাসপোর্টের পাতা ও ডেলিভারীর ধরণ অনুযায়ী পাসপোর্ট ফি নিম্মরূপ।

ধরণ ও পাতা৪৮ পাতা৬৪ পাতা
সাধারণ৫,৭৫০ টাকা৮,০৫০ টাকা
জরুরী৮,০৫০ টাকা১০,৩৫০ টাকা
অতি জরুরী১০,৩৫০ টাকা১৩,৮০০ টাকা
১০ বছর মেয়াদী ই পাসপোর্ট ফি

শেষকথা

ই পাসপোর্ট বিষয়ক যে কোন তথ্যের জন্য দেখুন- ই পাসপোর্ট । তাছাড়া পাসপোর্ট আবেদন, নবায়ন বা অন্য যে কোন সমস্যায় প্রয়োজনীয় তথ্য ও পরামর্শের জন্য Eservicesbd Facebook Page এ মেসেজ দিতে পারেন।

ই পাসপোর্ট সংক্রান্ত আরো তথ্য

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।