ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার কি কি উপায় আছে। কোন উপায়ে জমা দেওয়া সবচেয়ে নিরাপদ। অনলাইনে কিভাবে ই পাসপোর্ট ফি জমা দিবেন সকল তথ্য।

ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

বর্তমানে ই পাসপোর্টের টাকা বা ফি জমা দেওয়ার মাধ্যম হচ্ছে এ চালান (A Challan) এবং সোনালী ব্যাংকের সোনালী বিল পেমেন্ট সিস্টেম (Sonali Bill Payment System)। দেখুন কিভাবে অনলাইনে এ চালানের মাধ্যমে আপনার ব্যাংক একাউন্ট, ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড, বিকাশ ও রকেট থেকে ই পাসপোর্টের টাকা জমা দিবেন।

ই পাসপোর্ট ফি জমা দেওয়ার জন্য যা লাগবে

ই পাসপোর্ট ফি জমা দিতে যে তথ্যসমূহ প্রয়োজন হবে,

  • পাসপোর্টের পৃষ্ঠা সংখ্যা ও মেয়াদ
  • পাসপোর্টের ডেলিভারীর ধরণ- সাধারণ বা জরুরী
  • ব্যাক্তিগত পরিচিতি নম্বর- জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধন নম্বর
  • পাসপোর্ট আবেদন অনুসারে নাম (ইংরেজি)
  • পাসপোর্ট আবেদন অনুসারে ঠিকানা (বর্তমান)
  • মোবাইল নম্বর

অনলাইনে ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

অনলাইনে ই-পাসপোর্টের টাকা জমা দেয়ার জন্য A Challan ওয়েবসাইটে গিয়ে ই পাসপোর্ট ফি সিলেক্ট করুন। এরপর পাসপোর্টের পৃষ্ঠা সংখ্যা, মেয়াদ ও ডেলিভারীর ধরণ বাছাই করুন। তারপর, ব্যক্তির পরিচিতি নম্বর, নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নম্বর লিখুন। সবশেষে সুবিধামত ব্যাংক বাছাই করে পেমেন্ট করুন এবং চালানের প্রিন্ট কপি সংগ্রহ করুন।

তবে অবশ্যই একটু সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। নিচের ধাপগুলোতে আমি ই পাসপোর্টের জন্য এ চালান পেমেন্ট করে দেখাবো ইনশাআল্লাহ। খেয়াল করে অনুসরণ করুন।

ধাপ ১: অনলাইনে এ চালান করার জন্য Automated Challan System Bangladesh (A Challan) ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন এখান থেকে

ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

ধাপ ২: পাসপোর্ট অপশন থেকে ই পাসপোর্ট ফি তে ক্লিক করুন। আপনার সামনে নিচের মত একটি উইন্ডো আসবে।

ই পাসপোর্ট ফি জমা দেয়ার নিয়ম

ধাপ ৩: এখান থেকে প্রথমে পাসপোর্টের পৃষ্ঠার সংখ্যা বাছাই করুন। তারপর পাসপোর্টের মেয়াদ ও ডেলিভারীর ধরণ বাছাই করুন। স্বয়ংক্রীয়ভাবে টাকার পরিমাণ দেখাবে। নিচ থেকে OK বাটন ক্লিক করুন।

ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

ধাপ ৪: এবার যে ব্যক্তির পাসপোর্টের জন্য ফি পরিশোধ করা হচ্ছে তার জাতীয় পরিচয়পত্র বা জন্ম নিবন্ধন নম্বর সনাক্তকরণ নম্বর, নাম, ঠিকানা ও মোবাইল নম্বর লিখতে হবে। ইমেইল অপশনাল, লিখতেও পারেন না লিখলেও পারেন।

নাম লেখার ক্ষেত্রে অবশ্যই পাসপোর্ট আবেদনের সাথে মিল রেখে নাম এন্ট্রি করতে হবে। এ চালানে ও পাসপোর্ট আবেদনে নামের বানানে পার্থক্য থাকলে চালান গৃহীত হবে না।

এছাড়া খেয়াল রাখবেন, যদি জাতীয় পরিচয়পত্র দ্বারা পাসপোর্টের আবেদন করা হয় অবশ্যই জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর দিবেন। আর যাদের বয়স ২০ বছরের কম, জাতীয় পরিচয়পত্র নেই, তারা জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিবেন। অবশ্যই সংখ্যাগুলো শুদ্ধভাবে দিবেন।

এখানে ব্যাংক বাছাই করুন। আপনার সুবিধামত আপনি অন্য ব্যাংক ও বাছাই করতে পারবেন।

বিকাশ, নগদ ও রকেটের মাধ্যমে টাকা জমা দিতে সোনালী ব্যাংক সিলেক্ট করুন। সোনালী ব্যাংকের অনলাইন একাউন্ট, ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড থেকেও পেমেন্ট করতে পারবেন।

এখন Save বাটনে ক্লিক করুন। আপনাকে সোনালী ব্যাংকের পেমেন্ট গেটওয়েতে নেয়া হবে।

ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

ধাপ ৫: এখান থেকে Account অথবা Visa/ Master Card/ Amex Card অথবা Mobile Banking অপশন সিলেক্ট করে পেমেন্ট করুন।

সর্তকতা ১- পেমেন্ট করার সময় সতর্ক থাকবেন যেন আপনার ইন্টারনেট কানেশন বিছিন্ন না হয় এবং কম্পিউটার ডিভাইস বা মোবাইল ফোন বন্ধ না হয়।

সর্তকতা ২- পেমেন্ট করার সময় কোন কারণে আপনার একাউন্ট থেকে টাকা কেটে নেওয়া হয়েছে কিন্তু লেনদেনটি সফল হয়নি বা Transaction Failed এমন মেসেজ দেখাতে পারে। এমন অবস্থায় আপনি ও পেইজটি ভুলেও Close ক্লোজ করবেন না। ওই পেইজের লিংক থেকে চালান নম্বর সংগ্রহ করে আপনাকে চালান ডাউনলোড করতে হবে। প্রক্রিয়াটি নিচে দেখানো হল। দেখুন চালান ডাউনলোড করতে না পারলে যা করবেন

নগদ, রকেট ও বিকাশের মাধ্যমে ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেয়ার নিয়ম

নগদ রকেট ও বিকাশ বহুল ব্যবহৃত মোবাইল ব্যাংকিং সেবা। মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে পাসপোর্ট ফি জমা দেয়ার জন্য, ৪ নং ধাপ থেকে সোনালী ব্যাংক সিলেক্ট করবেন।

এখন Save বাটনে ক্লিক করুন। আপনাকে সোনালী ব্যাংকের পেমেন্ট গেটওয়েতে নেয়া হবে। এখানে Mobile Banking বাটনে ক্লিক করে পেমেন্ট করুন।

বিকাশের মাধ্যমে ই পাসপোর্ট ফি জমা দেয়ার নিয়ম

আপনার সুবিধামত যে কোন একটি সেবা বাছাই করুন। এক্ষেত্রে আমি বিকাশ সিলেক্ট করলাম।

অনলাইনে পাসপোর্টের ফি জমা

এখানে, Pay with bKash বাটনে ক্লিক করুন। বিকাশের পেমেন্ট অপশন আসলে, আপনার মোবাইল নম্বর দিন। তারপর আপনার বিকাশ মোবাইল নম্বরে এসএমএসের মাধ্যমে একটি ভেরিফিকেশন কোড আসবে।

ভেরিফিকেশন কোড ও আপনার বিকাশের পিন দিয়ে পেমেন্ট করুন।

মোবাইলের মাধ্যমে ই পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার নিয়ম

আপনি চাইলে আপনার মোবাইল থেকেও ই পাসপোর্টের টাকা জমা দিতে পারেন। এজন্য সবচেয়ে ভাল হয় আপনার মোবাইলে বাংলাদেশ অর্থ মন্ত্রণালয়ের A Challan অ্যাপ ইনস্টল করে নেওয়া। তাছাড়া, Google Chrome থেকেও এ চালান পরিশোধ করতে পারেন।

উপরে দেখানো ধাপ গুলোর মতই এ চালান অ্যাপ থেকে পাসপোর্ট ফি পরিশোধ করতে পারবেন।

পাসপোর্ট ফি পরিশোধের পর চালান ডাউনলোড করতে না পারলে যা করবেন

অনেক সময় অনলাইনে পেমেন্ট করার ক্ষেত্রে আপনার একাউন্ট থেকে টাকা কেটে নেওয়ার পরও লেনদেনটি ব্যর্থ হয়েছে এমন আসতে পারে। এমন অবস্থায় আপনি যা করবেন না এবং যা করবেন,

  1. আপনি ওই পেইজটি ভুলেও Close ক্লোজ করবেন না।
  2. আপনাকে ওই পেইজের লিংকটি কপি করে নিতে হবে।
  3. কপি করা লিংকটি Note বা Message এর মধ্যে সেইভ করুন।
  4. লিংকের মধ্যে 2122-00019740571 এ ধরণের একটি নম্বর খুজে পাবেন যেটি আপনার এ চালান নম্বর।
  5. Online Challan Verification এই ওয়েবসাইটে যান।
  6. লিংকে পাওয়া চালান নম্বরটি দিয়ে আপনার এ চালানটি সার্চ করুন। নিচের ছবিতে দেখানো হল।
এ চালান যাচাই

এখানে প্রথম বক্সে ৪ ডিজিট ও পরের বক্সে ১১ ডিজিট লিখে Verify বাটনে ক্লিক করুন। আশা করি আপনার চালান পাওয়া যাবে। চালানের PDF ফাইলটি সেইভ করুন এবং প্রিন্ট করে নিন।

যদি এই পদ্ধতিতে চালান নম্বর নিতে না পারেন, সেই ক্ষেত্রে সোনালী ব্যাংক পেমেন্ট গেটওয়ের ফেইসবুক সাপোর্ট গ্রুপ SPG Support Group – যোগাযোগ করুন। আশা করি আপনার চালান নম্বর ও পেমেন্ট স্লিপ সংগ্রহ করতে পারবেন।

এ চালানে ই পাসপোর্ট ফি এডজাস্টমেন্ট করার নিয়ম

৪৮ পৃষ্ঠার ই পাসপোর্ট ফি জমা দিয়েছেন কিন্তু এখন ৬৪ পৃষ্ঠার ই পাসপোর্ট ফি জমা দিতে হবে? অথবা সাধারন ডেলিভারীর ফি জমা দিয়েছেন কিন্তু জরুরী আবেদন করার ফি জমা দেয়া প্রয়োজন? এমতাবস্থায় বাড়তি ফি কিভাবে জমা দিবেন দেখুন।

এ চালানে ই পাসপোর্ট ফি এডজাস্টমেন্ট আপনি ব্যাংক থেকেও করতে পারবেন আবার নিজে অনলাইনেও করতে পারবেন।

অনলাইনে ই পাসপোর্ট ফি এডজাস্টমেন্ট করার জন্য নিচের ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

ধাপ ১: A Challan ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন এখান থেকে। তারপর ই পাসপোর্ট ফিতে ক্লিক করুন।

ই পাসপোর্ট ফি এডজাস্টমেন্ট করার নিয়ম

ধাপ ২ # ই পাসপোর্ট ফি এডজাস্টমেন্ট অপশন সিলেক্ট করুন। এবার আপনার আগের পরিশোধ করা চালান নম্বরটি লিখুন এবং পরিবর্তিত পাসপোর্টের ধরণ সিলেক্ট করুন। অর্থাৎ আপনি এখন কোন ধরনের পাসপোর্টের আবেদন করতে চাচ্ছেন, ৬৪ পাতা সাধারণ নাকি ৬৪ পাতা জরুরী তা সিলেক্ট করুন।

সবশেষে OK বাটনে ক্লিক করে পূর্বে দেখানো পদ্ধতিতে বাকি টাকা পরিশোধ করুন। নিচের ছবিতে দেখুন।

ই পাসপোর্ট ফি এডজাস্টমেন্ট

উপরে দেখানো পদ্ধতিতে একইভাবে পাসপোর্ট ফি এডজাস্ট করা চালান কপি ডাউনলোড ও প্রিন্ট করে নিন।

ব্যাংক কাউন্টার থেকে এ চালানের মাধ্যমে ই পাসপোর্ট ফি পরিশোধ

অনলাইনে ছাড়াও ব্যাংকিং সময়ের মধ্যে যে কোন সময়, সরাসরি ব্যাংক কাউন্টার থেকেও এ চালানের মাধ্যমে ই পাসপোর্টের টাকা জমা দিতে পারবেন।

ব্যাংক কাউন্টার থেকে পাসপোর্ট ফি জমা দিতে আপনার প্রয়োজন হবে, ই পাসপোর্ট আবেদনের সামারি (E Passport Application Summery) এবং রেজিস্ট্রেশন ফর্ম (Registration Form)।

পাসপোর্ট আবেদন অনুসারে আপনার নাম, জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর, মোবাইল নম্বর ও পাসপোর্টের পৃষ্ঠা ও মেয়াদ দিতে হবে। যাতে কোন ভুল না হয়।

চালান পরিশোধের পর ব্যাংক অফিসারের থেকে চালান ফরমের প্রিন্ট কপি সংগ্রহ করুন। ই পাসপোর্ট ফির চালানের কপিটি এনরোলমেন্টের সময় আবেদনের সাথে পাসপোর্ট অফিসে জমা দিতে হবে।

এ চালানের মাধ্যমে পাসপোর্টের টাকা জমা দেওয়ার ব্যাংক

যে সমস্ত ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে সরাসরি অনলাইনের মাধ্যমে পাসপোর্টের টাকা জমা দিতে পারবেন,

  • A B Bank
  • Agrani Bank
  • Bangladesh Commerce Bank
  • BRAC Bank
  • Dutch Bangla Bank
  • Eastern Bank
  • First Security Islami Bank
  • Islami Bank
  • Midland Bank
  • NRB Commercial Bank
  • One Bank
  • Sonali Bank
  • Southeast Bank
  • Premier Bank

বিদেশ থেকে ই পাসপোর্টের ফি জমা দেওয়ার নিয়ম

বিদেশে অবস্থানরত বিভিন্ন মিশনে ইতোমধ্যে ই পাসপোর্ট কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়েছে। এর মধ্যে সংযুক্ত আরব আমিরাত, যুক্তরাষ্ট্র, সৌদি আরব ইত্যাদি রয়েছে। তাই এখানকার বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে আপনারা ই পাসপোর্ট আবেদন ও রিনিউ করতে পারবেন। বিদেশ থেকে ই পাসপোর্টের ফি কিভাবে জমা দিবেন তার তথ্য দেওয়া হল।

সংযুক্ত আরব আমিরাত সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ই পাসপোর্ট ফি জমা
যুক্তরাষ্ট/ আমেরিকা আমেরিকা থেকে ই পাসপোর্ট ফি জমা
সিঙ্গাপুরসিঙ্গাপুর থেকে এখনো ই পাসপোর্ট কার্যক্রম চালু হয়নি। তাই MRP পাসপোর্ট ফি অফিস কাউন্টারে শুধুমাত্র NETS-এর মাধ্যমে প্রদান করতে হবে।

ই পাসপোর্ট সম্পর্কিত আরও তথ্য

আশা করি এই পোস্টটি আপনার উপকারে লাগতে পারে। ই পাসপোর্ট সংক্রান্ত যে কোন তথ্যের জানতে দেখুন- ই পাসপোর্ট

এ বিষয়ে কোন প্রশ্ন বা হেল্প চাইলে আমাদের Contact পেইজ থেকে আমাদের মেসেজ দিতে পারেন।

সকল আপডেট তথ্যের জন্য Facebook Page

Similar Posts

11 Comments

  1. ই পাসপোর্ট অনলঅইন লিংক থেকে পাসপোর্ট রেনু করা যাবে কি তাহলে ফি কত লাগবে আমার এমআরপি পাসপোর্ট এর মেয়াদ 2018 সালে শেষ হয়েছে এক্ষেত্রে কোন জরিমানা ফি দিতে হবে কি হলে কত প্লিজ জানালে উপকৃত হব।

  2. আমার মা‌য়ের নাম ওনার আই‌ডি ও আমার আই‌ডিতে কিছুটা ভিন্ন ভিন্ন আ‌ছে। এ ক্ষে‌ত্রে আমার পাস‌পোর্ট করার জন্য কোন‌টি ব্যবহার কর‌বো?
    ‌যেমন: ওনার আই‌ডি কা‌র্ডে আ‌ছে রা‌শেদা খানম আর আমার আইডি কা‌র্ডে আ‌ছে শুধু রা‌শেদা

মন্তব্য করুন