বয়স বের করার সহজ পদ্ধতি – যেভাবে সঠিক বয়স বের করবেন

কিভাবে সহজেই আপনার বয়স বের করবেন? বয়স বের করার সহজ পদ্ধতি হলো Age Calculator ব্যবহার করা। শিখে নিন হাতে কলমে সঠিক বয়স বের করার সহজ পদ্ধতি।

Advertisement
বয়স বের করার সহজ পদ্ধতি

চাকরির আবেদন, চাকরির বয়স বের করা বা বিভিন্ন কারণে সঠিক বয়স বের করার প্রয়োজন করতে হয়। অনেকেই বয়স বের করার এই সহজ নিয়মটি জানেন না।

এই ব্লগে হাতে কলমে কিভাবে বয়স বের করতে হয় এবং বয়স বের করার ক্যালকুলেটর ব্যবহার করার পদ্ধতি জানাব। আসুনে দেখে নিই বিস্তারিত।

এক নজরে সম্পূর্ণ লেখা

Advertisement

বয়স বের করার নিয়ম

জন্ম তারিখ দিয়ে বয়স বের করার নিয়ম ২টি। যথা-

  • খাতা কলমে হিসাব করা: নিজে নিজে বর্তমান তারিখ থেকে জন্ম তারিখ বিয়োগ করা।
  • বয়স ক্যালকুলেটর: বিভিন্ন অনলাইন বয়স ক্যালকুলেটর এর সাহায্যে বয়স নির্ণয়।

১. বয়স বের করার ক্যালকুলেটর

Age Calculator লিখে গুগলে সার্চ করলে অনেক ধরনের Age Calculator Tool ওয়েবসাইট পাবেন। সেখানে আপনার জন্ম তারিখ ও বর্তমান তারিখ দিয়ে সহজে বর্তমান বয়স বের করতে পারবেন।

  1. নিচের Age Calculator এ আপনার জন্ম তারিখ দিন;
  2. যে তারিখে বয়স বের করতে চান সেই তারিখ দিন;
  3. Calculate Age ক্লিক করুন;
  4. ক্যালকুলেটর আপনার বর্তমান বয়স প্রদর্শন করবে।

Age Calculator

বর্তমানে অনলাইন বয়স ক্যালকুলেটর গুলো অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে । কেননা এগুলো সঠিকভাবে বয়স নির্ণয় করে দেয় এবং এক্ষেত্রে আপনার চাকরির বয়স এবং অবসরের বয়স দেখা সম্ভব।

Advertisement

এছাড়া আপনি আপনার জীবনে কতগুলো দিন কাটিয়েছেন, কতগুলো মাস কাটিয়েছেন ,কতগুলো মিনিট সেকেন্ড কাটিয়েছেন এগুলোর হিসাব সহজে এখানে দেখতে পাবেন। 

নিচে কয়েকটি বয়স বের করার ক্যালকুলেটরের লিংক দেওয়া হলো-

বয়স বের করার ক্যালকুলেটর

২. খাতা কলমে বয়স বের করার নিয়ম

বয়স নির্ণয় করার সূত্রটি হচ্ছে, বর্তমান তারিখ – জন্ম তারিখ ।

প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র:

Advertisement
  • কাগজ ও কলম
  • আপনার জন্ম তারিখ (বছর ,মাস, দিন)
  • যে তারিখে বয়স বের করতে চান (বছর ,মাস, দিন)

মনে করুন আপনার জন্ম তারিখ ২৫/৯/২০০০ এবং বর্তমান তারিখ ১৫/৫/২০২১ । এখন আপনি আপনার বয়স হিসাব করতে চাচ্ছেন।

এখানে বর্তমান বয়স ২০ বছর ৭ মাস ২১ দিন ।

ধাপ ১: যেহেতু ১৫ দিন থেকে ২৫ দিন বিয়োগ করা যায় না তাই একটি মাসে যতদিন থাকে তা ধার নিতে হবে। যেহেতু ৫ তম মাসে ৩১ দিন থাকে তাই ৩১ ধার নেওয়া হয়েছে। যদি ঐ মাসে ৩০  দিন থাকতো তবে ৩০ ধার নেওয়া হত। ৩১ দিনকে ১৫ এর সাথে যোগ করা হয়েছে তারপর তা থেকে ২৫ বিয়োগ দেয়া হয়েছে।

  • ৩১+১৫=৪৬ তারপর
  • ৪৬-২৫=২১ দিন

ধাপ ২: যেহেতু পূর্বে ১ মাস দিনে রূপান্তরিত করা হয়েছে  তাই বর্তমানে রয়েছে ৪ মাস। এখন ৪মাস থেকে ১০ মাস বিয়োগ করা যায় না । সেহেতু এক বছর অর্থাৎ১২ মাস ধার নিতে হবে। এরপর ধাপ ১ এর মতো করেই হিসাবটা করতে হবে অর্থাৎ;

Advertisement
  • ৪+১২=১৬ তারপর
  • ১৬-৯=০৭ মাস 

ধাপ ৩: যেহেতু পূর্বে ১ বছর মাসকে দিয়ে দেওয়া হয়েছে তাই একটি বছর বিয়োগ যাবে।

অর্থাৎ

  • ২০২১-১=২০২০ তারপর
  • ২০২০-২০০০=২০ বছর

কিন্তু এখানে একটি বিষয় রয়েছে।

  • যদি বর্তমান তারিখের মাস ও দিন, আপনার জন্ম তারিখের মাস ও দিনের থেকে বড় সংখ্যার হয় তাহলে আপনি বিয়োগফল সহজে বের করতে পারবেন। আর এই বিয়োগফলই হবে আপনার বয়স।
  • কিন্তু যদি বর্তমান তারিখের মাস ও দিনের সংখ্যাটি, জন্ম তারিখের মাস ও দিনের সংখ্যা থেকে ছোট হয় । তাহলে বিয়োগ করার জন্য নিচের পদ্ধতিটি অনুসরণ করুন। মনে রাখতে হবে, ধার নিতে হলে বর্তমান বছর /মাস থেকে ধার নিতে হবে।

বয়স নির্ণয় করার প্রয়োজনীয়তা

বিভিন্ন কারণে বয়স নির্ণয় করার প্রয়োজনীয়তা দেখা দিতে পারে । যেমন-

  • টিকা: নির্দিষ্ট বয়সের শিশুদের টিকা দেওয়ার জন্য ।
  • জন্ম নিবন্ধন: জন্ম নিবন্ধন তৈরির জন্য বয়স সবেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এই জন্ম নিবন্ধনের তারিখে পরবর্তী সকল কাজে ব্যবহৃত হয়ে থাকে।
  • শিক্ষাগত প্রতিষ্ঠানে ভর্তি: স্কুল, কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য শিক্ষার্থীর বয়স নির্ণয় করা প্রয়োজন হতে পারে।
  • চাকরির আবেদন: অনেক চাকরির জন্য বয়স নির্দিষ্ট করে দেয়। সে ক্ষেত্রে বয়স গণনার প্রয়োজন হতে পারে। 
  • চিকিৎসা: রোগীর বয়স অনুযায়ী ডাক্তার রোগীর চিকিৎসা ও ওষুধের মাত্রা নির্ধারণ করে থাকেন।

এছাড়া আরো বিভিন্ন কাজে বয়স গণনার প্রয়োজন হয়। যেমন:

  • পাসপোর্ট
  • ড্রাইভিং লাইসেন্স
  • ভোটার আইডি
  • বিবাহ
  • বয়স ভিত্তিক কোনো বিশেষ সুবিধা
  • আদালতের কার্যক্রম
  • বীমা
  • অবসর

উপরোক্ত দুটি নিয়ম অনুসরণ করে বয়স গণনা করা সম্ভব। কিন্তু বয়স ক্যালকুলেটর ব্যবহার করলে দ্রুত ও সঠিকভাবে বয়স নির্ণয় করা যাবে। অন্যদিকে সাধারণ পদ্ধতিতে হিসাব করতে গেলে সেটা কিছুটা সময় সাপেক্ষ হয় এবং ভুল হওয়ার সম্ভাবনা থেকে যায়। আবার কিছু ক্ষেত্রে বিয়োগ করার পদ্ধতি জটিল মনে হতে পারে।

আশা করি আর্টিকেলটি পড়ার মাধ্যমে আপনারা বয়স বের করার সহজ পদ্ধতি এবং বয়সের দিন মাস বছর বের করার নিয়ম ভালোভাবে বুঝতে পেরেছেন।

Advertisement

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।