বাচ্চাদের ই পাসপোর্ট করার নিয়ম 2022

১৫ বছরের কম অপ্রাপ্তবয়স্ক এবং শিশুদের পাসপোর্ট করার নিয়ম কি, কিভাবে ছবি জমা দিবেন, অনলাইনে ই পাসপোর্ট আবেদনের প্রক্রিয়া জেনে নিন।

১৫ বছরের কম, অপ্রাপ্তবয়স্ক বা বাচ্চাদের পাসপোর্ট করার নিয়ম, কি কি কাগজপত্র লাগবে, কিভাবে অনলাইনে শিশুর ই-পাসপোর্টের আবেদন করবেন বিস্তারিত বলব।

বাংলাদেশে পাসপোর্ট করার নিয়ম অনুযায়ী ই পাসপোর্টের আবেদনের জন্য যে কোন ব্যক্তির জাতীয় পরিচয়পত্র প্রয়োজন হয়। যেহেতু, ১৮ বছর হওয়ার পরও অনেকে জাতীয় পরিচয় পত্র হাতে পায় না। তাই ১৮-২০ বছর বয়স পর্যন্ত এনআইডি কার্ড না থাকলে জন্ম নিবন্ধন দিয়ে আবেদন করা যাবে।

সাধারণত আমরা অপ্রাপ্তবয়স্ক বলতে বুঝি ১৮ বছরের কম বয়সী ব্যক্তিকে। কিন্তু পাসপোর্ট আবেদনের ক্ষেত্রে ১৫ বছরের কম বয়সীদের শিশু বা অপ্রাপ্ত বয়স্ক বিবেচনা করা হয়।

ই পাসপোর্ট করার নিয়ম

পাসপোর্ট আবেদনের ক্ষেত্রে একজন অপ্রাপ্তবয়স্ক শিশু ও প্রাপ্ত বয়স্ক ব্যক্তির আবেদন প্রক্রিয়া ও ফি একই। আবেদনের ক্ষেত্রে কোনরকম পার্থক্য নেই। তবে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের ক্ষেত্রে বয়সভেদে কিছুটা ভিন্নতা রয়েছে।

ছোট বাচ্চাদের পাসপোর্ট করতে কি কি লাগে

১ দিন থেকে ১৫ বছর বয়স্ক বাচ্চাদের পাসপোর্ট করতে নিম্মোক্ত কাগজপত্র লাগবে।

  • জন্ম নিবন্ধন সনদের কপি
  • পিতার জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি
  • মাতার জাতীয় পরিচয়পত্রের কপি
  • জরুরী প্রয়োজনে যোগাযোগের জন্য একজন আত্মীয়ের নাম, ঠিকানা ও ফোন নম্বর
  • ছবি (৬ বছরের কম বয়সী হলে)
  • এনওসি – NOC বা অনাপত্তি পত্র (সরকারি/ আধা সরকারি/ স্বায়ত্ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠানে চাকরীজীবির সন্তানের ক্ষেত্রে)
  • পাসপোর্ট ফি পরিশোধের এ চালান কপি

জন্ম নিবন্ধন

জন্ম নিবন্ধন দিয়ে পাসপোর্ট করতে হলে, আগে নিশ্চিত হতে যে শিশুর জন্ম নিবন্ধন নম্বর ১৭ ডিজিট এবং ডিজিটাল। ডিজিটাল বলতে বুঝানো হচ্ছে নিবন্ধন তথ্য অনলাইনে রয়েছে। এছাড়া তথ্যসমূহ ইংরেজিতে থাকলে আরো ভালো।

জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল কিনা যাচাই করুন – ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন যাচাই

পিতা-মাতার জাতীয় পরিচয় পত্র

সাধারণত ই পাসপোর্টের জন্য মুল ডকুমেন্ট হচ্ছে এনআইডি। বয়স ১ দিন থেকে ২০ বছর পর্যন্ত ব্যক্তির ক্ষেত্রে জন্ম নিবন্ধন দিয়ে পাসপোর্ট আবেদন করা যায়, কিন্তু এক্ষেত্রে অনলাইন আবেদনে পিতা-মাতার জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর উল্লেখ করতে হবে এবং অফিসে ফটোকপি জমা দিতে হবে।

জরুরী যোগাযোগ

পাসপোর্টে জরুরী যোগাযোগ করার জন্য একজন আত্মীয়ের নাম, ঠিকানা ও ফোন নম্বর দিতে হয়। এটি পরিবারের অন্য কোন সদস্য বা কোন নিকট আত্মীয়ের তথ্য ও ফোন নম্বর দিতে পারেন।

ছবি

শিশুর বয়স ৬ বছরের কম হলে, অবশ্যই শিশুর এক কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি আবেদনপত্রের প্রিন্ট কপির উপরের বাম পাশে আঠা দিয়ে সংযুক্ত করতে হবে। শিশুর বয়স ৬ বছরের বেশি হলে তার প্রয়োজন নেই।

এনওসি- NOC (সরকারি চাকরীজীবির সন্তান হলে)

যদি আপনি সরকারি/ আধা সরকারি বা স্বায়ত্বশাসিত কোন প্রতিষ্ঠানের চাকরীজীবি হন, আপনার সন্তানের পাসপোর্ট করার জন্য অবশ্যই আপনার ডিপার্টমেন্ট থেকে একটি অনাপত্তি সনদ বা নো অবজেকশন সার্টিফিকেট নিতে হবে।

যদি আপনি একইসাথে পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেন, তাহলে একটি NOC দিয়েই আপনি আপনার উপর নির্ভরশীল স্বামী/ স্ত্রী ও সন্তানদের পাসপোর্ট আবেদন করতে পারেন।

এছাড়া, এককভাবে শুধুমাত্র শিশুর পাসপোর্ট আবেদন করলেও তার নামে আপনার অধিদপ্তর বা অফিস হতে একটি এনওসি নিতে হবে।

এনওসি দিয়ে পাসপোর্ট আবেদনের ক্ষেত্রে কোনরুপ পুলিশ ভেরিফিকেশন হবে না। এছাড়া, সাধারন পাসপোর্টের ফি দিয়েই জরুরী পাসপোর্ট পাবেন।

পড়তে পারেন- সরকারি চাকরীজীবিদের পাসপোর্ট করার নিয়ম

ফি পরিশোধের চালান

এ চালানের মাধ্যমে ই পাসপোর্ট ফি পরিশোধ করতে হবে। অনলাইনে সরাসরি এ চালান অ্যাপ থেকে বা ওয়েবসাইট থেকেও ডেবিট কার্ড, বিকাশ, নগদ ও রকেটের মাধ্যমে ফি পরিশোধ করতে পারবেন।

এছাড়া যে কোন ব্যাংক থেকেও এ চালান জমা দিতে পারেন। চালান কপি অন্যান্য কাগজপত্রের সাথে পাসপোর্ট অফিসে জমা দিতে হবে।

বাচ্চাদের ই পাসপোর্ট করার নিয়ম

ই পাসপোর্টের জন্য শিশু ও প্রাপ্তবয়স্ক উভয়ের জন্যই অনলাইনে আবেদন করতে হয়। প্রথমে অনলাইনে আবেদন করুন। এরপর পাসপোর্ট ফি পরিশোধ করার পর, চালান কপি ও প্রয়োজনীয় অন্যান্য কাগজপত্র পাসপোর্ট অফিসে জমা দিয়ে আবেদন সম্পন্ন করতে হবে।

সাধারণ একজন শিশুর পাসপোর্ট আবেদন ২ ভাবে হতে পারে, ১) বাবা/মায়ের পাসপোর্ট আবেদনের সাথে অথবা ২) আলাদাভাবে শিশুর পাসপোর্ট আবেদন।

পিতা-মাতার সাথে একসঙ্গে পাসপোর্ট আবেদন করলে অনেকটা হয়রানি কম হয়। তবে উভয়ক্ষেত্রেই আবেদন প্রক্রিয়া, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও ফি’র পরিমাণ একই। দেখুন ই পাসপোর্ট আবেদনের নিয়ম

বাচ্চাদের ই পাসপোর্ট করতে কত দিন লাগে

প্রাপ্তবয়স্ক ও বাচ্চাদের ই পাসপোর্ট আবেদন ও পাসপোর্ট ডেলিভারীর প্রক্রিয়া একই। স্বাভাবিক ডেলিভারী সময়ের কিছুটা হেরফের হতে পারে।

Similar Posts

One Comment

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।