সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম ২০২৩

জানুন সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম সম্পর্কে। আলোচনা করা হলো সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্র মুনাফার হার, কি কি লাগবে, উত্তোলন ও ভাঙ্গানোর নিয়ম।

নতুন অর্থ আইন ২০২২ অনুযায়ী সঞ্চয়পত্র ক্রয়ের ক্ষেত্রে কিছু নিয়ম পরিবর্তন হয়েছে। তাই সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম ২০২৩ সম্পর্কে বিস্তারিত জানাতে এই পোস্ট।

যদি আপনি নতুন সঞ্চয়পত্র কিনতে চান, আপনার জন্য এসব তথ্য জানা খুব জরুরী।

ব্যবসা বা চাকরি করতে পারেন না এমন মানুষ সরকারি সঞ্চয় স্কীমের আওতায় মাসিক বা ৩ মাস পর পর মুনাফায় সরকারি সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ করতে পারেন।

বাংলাদেশ সরকার সঞ্চয়পত্রে সর্বোচ্চ মুনাফা প্রদান করে যা অন্য কোন ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান এত মুনাফা দেয় না।

সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্র

বাংলাদেশ জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরই মূলত সঞ্চয়পত্র কার্যক্রম পরিচালনা করে। সঞ্চয়পত্র ক্রয়-বিক্রয় আরও সহজ করার জন্য এই সঞ্চয়পত্র বিক্রয়ের কাজ বাংলাদেশ ব্যাংক, সোনালী ব্যাংক লিমিটেড ছাড়াও বাংলাদেশের প্রায় বাণিজ্যিক ব্যাংকই করে থাকে।

সোনালী ব্যাংক সরকারী ব্যাংক হিসেবে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ব্যাংক। গ্রামে গঞ্জে এর অনেক শাখা রয়েছে। তাই বিভিন্ন কারণে সরকারি ব্যাংক থেকে সঞ্চয়পত্র ক্রয় করলে আপনার সুবিধা হয়।

আপনি যদি সঞ্চয়পত্রে আগ্রহী হন, সবচেয়ে ভাল হয় আপনার কাছাকাছি কোন সরকারি বাণিজ্যিক ব্যাংক থেকে সঞ্চয়পত্র করা।

সঞ্চয়পত্র কোন কোন ব্যাংকে করা যায়

সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম

বাংলাদেশ সরকার ও বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে দেয়া সোনালি ব্যাংক সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম অনুযায়ী একজন ব্যক্তি সব ধরনের সঞ্চয়পত্র মিলিয়ে সর্বোচ্চ ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে তিন মাস অন্তর মুনাফা-ভিত্তিক সঞ্চয়পত্র এবং পাঁচ বছর মেয়াদী সঞ্চয়পত্রের স্কিমে ৩০ লাখ টাকার বেশি কিনতে পারবেন না।

তাছাড়া, নতুন অর্থ আইন ২০২২ অনুসারে একজন ব্যাক্তি ৫ লক্ষ টাকার বেশি পরিমাণ সঞ্চয়পত্র ক্রয় করতে হলে, তাকে বিগত করবর্ষের আয়কর রিটার্ন জমা দেয়ার প্রমাণ দেখাতে হবে। তবে ৫ লক্ষ টাকার কম সঞ্চয়পত্র ক্রয়ে টিন সার্টিফিকেট বা আয়কর রিটার্নের কোন কাগজপত্র দেখাতে হবে না।

সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্র মুনাফার হার

১৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্র মুনাফার হার সর্বোচ্চ ১১.৫২% এবং সর্বনিম্ন ৯.৩৫%। এক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরণের সঞ্চয়পত্রের জন্য বিভিন্ন মুনাফার হার রয়েছে। ৫ বছর মেয়াদে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে আপনি সর্বোচ্চ মুনাফা এবং এর কম মেয়াদে বিনিয়োগ করলে তুলনামূলক কম মুনাফা পাবেন।

তাছাড়া সর্বমোট ১৫ লক্ষের বেশি পরিমাণ সঞ্চয়পত্রের ক্ষেত্রে মুনাফার হার হ্রাস পাবে।

৩ মাস অন্তর মুনাফা ভিত্তিক সঞ্চয়পত্রে আপনি ১ বছর মেয়াদে ১০% এবং সর্বোচ্চ ৩ বছর মেয়াদে ১১.০৪% হারে মুনাফা পাবেন। তবে অবশ্যই আপনার মুনাফার উপর ৫-১০% হারে আয়কর কর্তন করা হবে।

সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্র মুনাফার হার

তিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র

৩ মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র সবাই করতে পারবেন। এ সঞ্চয়পত্রে ভাল মুনাফা দেয়া হয়। ৩ মাস মেয়াদী সঞ্চয়পত্রের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৩ বছর মেয়াদে সর্বোচ্চ ৫০ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করতে পারেন।

৩ মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্রের মুনাফার হার

মেয়াদ১৫ লক্ষ পর্যন্ত১৫০০০০১ টাকা-৩০ লক্ষ৩০০০০০১ লক্ষের বেশি
১ম বছর১০%৯.০৬%৮.১৫%
২য় বছর১০.৫০%৯.৫১%৮.৫৬%
৩য় বছর১১.০৪%১০%৯%
৩ মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্রের মুনাফার হার

পরিবার সঞ্চয়পত্র

সাধারন মহিলাদের পারিবারিক সঞ্চয়পত্র এবং পুরুষদের জন্য ৩মাস অন্তর অন্তর মুনাফা সঞ্চয়পত্র প্রযোজ্য হয়।

পারিবারিক সঞ্চয়পত্র যদি পুরুষ কিনতে চায় সেক্ষেত্রে নিয়ম অনুযায়ী তাকে ৬৫ বা তার বেশি বয়সের হতে হবে।

সঞ্চয়পত্র কিনতে কি কি লাগবে

সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্র ক্রয় বা কেনার জন্য আপনার নিন্মোক্ত ডকুমেন্টগুলো লাগবে,

  1. দুই কপি ছবি,
  2. এক কপি জাতীয় পরিচয়পত্র ফরম,
  3. ১ কপি নমিনির ছবি,
  4. নমিনির জাতীয় পরিচয়পত্র।
  5. আপনার চেক বইয়ের একটি পাতা যেখানে সঞ্চয়পত্র এর টাকার পরিমাণ লেখা থাকবে।

সঞ্চয়পত্রের মুনাফা উত্তোলন

ব্যাংকের মাধ্যমে সঞ্চয়পত্র ক্রয় করার একটি বড় সুবিধা হচ্ছে, আপনার মুনাফা প্রতি মাসে অথবা নির্দিষ্ট সময় পর পর ব্যাংক একাউন্টে স্বয়ংক্রীয়ভাবে জমা হবে। আপনি চেক বা ডেবিট কার্ডের মাধ্যমে আপনার টাকা উত্তোলন করতে পারবেন।

আগের দিনের মতো এখন আর দাড়িয়ে থেকে মুনাফা তুলতে হবে না। এমনকি মাসিক মুনাফা আপনি চাইলে ব্যাংকের চেক বা ডেভিড কার্ডের মাধ্যমেও উঠাতে পারবেন।

এজন্য বর্তমান সময়ে বলা হয়ে থাকে সহজ ও নিরাপদ বিনিয়োগের জন্য সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ হতে পারে আপনার অন্যতম বিনিয়োগ পন্থা।

সঞ্চয়পত্র ভাঙ্গানোর নিয়ম

এই সঞ্চয়পত্র যেকোনো সময়ে ভাঙ্গাতে পারবেন। সঞ্চয়পত্র ভেঙ্গে আসল টাকা তুলতে চাইলে, আপনাকে ব্যাংকে জানাতে হবে। বাকি সকল কাজ ব্যাংক নিজেই করবে। তবে, নির্ধারিত সময়ের আগে ভাঙ্গালে আপনাকে নির্ধারিত চার্জ গুনতে হবে।

নির্দিষ্ট মেয়াদ শেষ হওয়ার পরের দিনই অটোমেটিক আপনার ব্যাংক হিসাবে সমুদয় টাকা জমা হয়ে যাবে।

FAQs

সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম ২০২৩ কি?

সোনালি ব্যাংক সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম অনুযায়ী একজন ব্যক্তি আয়কর রিটার্ন দাখিলের প্রমাণ ছাড়া সর্বোচ্চ ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত সঞ্চয়পত্র ক্রয় করতে পারবেন। এর বেশি পরিমাণ সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অবশ্যই আয়কর রিটার্ন জমা দেয়ার প্রমাণ দেখাতে হবে। এছাড়া, সব ধরনের সঞ্চয়পত্র মিলিয়ে সর্বোচ্চ ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ করা যাবে।

বর্তমানে সঞ্চয়পত্র কিনতে কি কি লাগে?

সঞ্চয়পত্র কিনতে লাগবে, আপনার ২ কপি ছবি, জাতীয় পরিচয়পত্র, নমিনির ছবি ১ কপি, নমিনির জাতীয় পরিচয়পত্র ও আয়কর রিটার্ন দাখিলের প্রমাণ (৫ লক্ষ টাকার বেশি সঞ্চয়পত্র ক্রয়)

অন্যের ব্যাংকে টাকা জমা রেখে নিজ নামে সঞ্চয়পত্র কেনা যাবে?

না, সোনালী ব্যাংক সঞ্চয়পত্র ক্রয়ের জন্য আপনার নিজ নামে ব্যাংক একাউন্ট থাকতে হবে। ব্যাংক সঞ্চয়পত্রের টাকা নেয়ার জন্য আপনার কাছ থেকে চেক নিবে এবং মেয়াদ শেষে আপনার একাউন্টে সমুদয় টাকা পরিশোধ করা হবে।

শেষকথা

আশা করি সঞ্চয়পত্র ক্রয়ের জন্য প্রয়োজনীয় প্রাথমিক সকল ধারণা পেয়েছেন। এছাড়া আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে, যে ব্যাংকে সঞ্চয়পত্র করতে চান সেখানকার দায়িত্বরত অফিসারের সাথে কথা বলতে পারেন। তিনি আপনাকে সকল তথ্য দিতে পারবেন।

বিনিয়োগ, ব্যবসায়, অর্থনীতি ও ব্যাংকিং বিষয়ক বিভিন্ন তথ্য পেতে আমাদের পেইজ ফলো করুন- MoneyAns

সঞ্চয়পত্র সংক্রান্ত আরও তথ্য

পারিবারিক সঞ্চয়পত্রপরিবার সঞ্চয়পত্রের নতুন নিয়ম
৩ মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিকতিন মাস অন্তর মুনাফাভিত্তিক সঞ্চয়পত্র
সঞ্চয়পত্র ক্রয়সঞ্চয়পত্র কোন কোন ব্যাংকে করা যায়
সঞ্চয়পত্র ভাঙ্গানোসঞ্চয়পত্র ভাঙ্গানোর নিয়ম
ক্যাটাগরিসঞ্চয়পত্র
হোমEservicesbd

Please Subscribe our YouTube Channel

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।