ট্রেনের টিকিট হারিয়ে গেলে করণীয়

ট্রেনের টিকিট হারিয়ে গেলে করণীয় কি, কিভাবে ট্রেনে ভ্রমণ করবেন। টিকিট হারানোর ক্ষেত্রে কি কি সতর্কতা মেনে চলবেন।

এখন ঈদের সময়। অনেকেই রেলওয়ে কাউন্টার থেকে টিকিট কিনছেন। কল্পনা করুন তো, কেমন হবে যদি অনেক কস্টে লাইনে দাড়িয়ে কেনা টিকিট হারিয়ে যায়। জেনে রাখুন ট্রেনের টিকিট হারিয়ে গেলে করণীয় কি, কিভাবে ভ্রমণ করবেন এবং এক্ষেত্রে কি কি সতর্কতা অবলম্বন করবেন।

বাংলাদেশ রেলওয়েতে, টিকিট ইস্যু করার পর তা রিপ্রিন্ট করা বা ডুপ্লিকেট টিকিট নেয়ার সুযোগ হয়তো এখন পর্যন্ত নেই। এর ফলে, যদি আপনার হারানো যায় আপনি টিকিট খুঁজে ডুপ্লিকেট কপি বা রিপ্রিন্ট নেওয়ার সুযোগ নেই বললেই চলে।

যেখানে নতুন টিকিট পেতেই কত ঝামেলা। ট্রেনের টিকিট বুকিং করা রীতিমত ভাগ্যের ব্যাপার। সেখানে হারানো টিকিট বের করার কথা চিন্তায় ও আনা যায় না।

টিকিট হারিয়েছে বলে ভ্রমণ করতে পারবেন না তা একদম নয়। আসুন জানি ট্রেনের টিকিট হারিয়ে গেলে কি করবেন বিস্তারিত।

ট্রেনের টিকিট হারিয়ে গেলে যা করবেন

টিকিট হারিয়ে ফেলেছেন, এখন নতুন টিকিট কিনার ও টাকা নেই বা বাসে যাবেন সেই সুযোগ ও নেই। সত্যিই অনেক টেনশনের ব্যাপার।

স্টেশন কাউন্টার থেকে টিকিট ক্রয় করলে

ট্রেনের টিকিট হারিয়ে গেলে, প্রথমে স্টেশন মাস্টারের সাথে কথা বলে দেখুন এ ব্যাপারে সহজভাবে কি করা যায়। তিনি কোনভাবে সহযোগিতা করতে পারে কিনা বা কিভাবে আপনার ট্রেনে ভ্রমন করা যায়।

যদি তিনি বা স্টেশন থেকে কোন সহযোগিতা না পান। নিচের উপায়টি আপনার জন্য প্রযোজ্য।

যাইহোক, বাংলাদেশে ট্রেনের টিকিট হারিয়ে গেলে করণীয় হচ্ছে, ট্রেনের কোচ নং, বগি নং, সিট নম্বর, টিকিট নম্বর/ পিএনআর নম্বর এবং টিকিট কেনায় ব্যবহৃত জাতীয় পরিচয় পত্র/ জন্ম নিবন্ধন নম্বর ও আপনার মোবাইল নম্বর উল্লেখ করে নিকটস্থ থানায় টিকিট হারানোর জিডি করুন। এরপর জিডি কপি নিয়ে ট্রেণে ভ্রমণ করুন।

এক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার উপরোক্ত তথ্যগুলো জানা প্রয়োজন। সবগুলো তথ্য না জানলেও চলবে। ট্রেনের টিকিট হারানো জিডি করার জন্য যেসব তথ্য লাগবে তা হচ্ছে,

  • টিকিটে আপনার নাম
  • ট্রেনের কোচ নং/ ট্রেনের নাম
  • যাত্রা সময় ও যে স্টেশন থেকে উঠবেন ও যে স্টেশনে নামবেন
  • সিট নম্বর
  • পিএনআর নম্বর
  • মোবাইল নম্বর

এটিই একমাত্র আইনসম্মত ও সহজ উপায়।

অনলাইনে ক্রয় করা টিকিট হারিয়ে গেলে

অনলাইন থেকে কেনা টিকিট হারিয়ে গেলে, বাংলাদেশ রেলওয়ে ই টিকিটিং সাইটে আপনার মোবাইল নম্বর ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ ইন করুন। উপরের ডান পাশে Purchase History থেকে ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিন। তাছাড়া, আপনার ব্যবহৃত ইমেইলের Inbox থেকেও ডাউনলোড করে প্রিন্ট করিয়ে নিন।

তাছাড়া আপনি যদি বাংলাদেশ রেলওয়ের RailSheba অ্যাপটি ব্যবহার করেন, অ্যাপে লগইন করে My Tickets অপশন থেকে আবার টিকেট ডাউনলোড করতে পারেন।

দেখুন- মোবাইলে ট্রেনের টিকিট কাটার নিয়ম

অনলাইনে টিকিট ক্রয় করলে আপনাকে এমন বিপদে পড়তে হবে না। সহজেই আপনার মেইল থেকে বা রেলওয়ে ই টিকিটিং সাইট থেকে ডাউনলোড করে প্রিন্ট দিতে পারবেন।

ট্রেনের টিকিট ক্রয়ে সতর্কতা

ট্রেনের টিকিট ক্রয় করার ক্ষেত্রে নিচের সতর্কতাগুলি মেনে চলা উচিত,

  • অনলাইনে টিকিট ক্রয় করার চেষ্টা করুন
  • কাউন্টার থেকে টিকিট ক্রয় করলে সবসময় নিজের নাম, মোবাইল নম্বর ও জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে টিকিট ক্রয় করবেন
  • কাউন্টার থেকে টিকিট ক্রয় করার পর, আপনার মোবাইলে টিকিটের ছবি তুলে রাখুন অথবা, টিকিটের সিট নম্বর, PNR নম্বর, ট্রেনের নাম, ও বগি নম্বর নিরাপদ স্থানে লিখে নিন।

ভাল থাকুন, নিরাপদে ভ্রমণ করুন। অনলাইনে কিভাবে ট্রেনের টিকেট ক্রয় করবেন দেখুন- অনলাইনে ট্রেনের টিকিট ক্রয়

Please Subscribe our YouTube Channel

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।