মৌজা কিভাবে বের করবেন – মৌজা ম্যাপ অনুসন্ধান ও ডাউনলোড করার নিয়ম

জমির মালিকানা সম্পর্কে জানতে আপনার জমির মৌজা ম্যাপ দেখতে বা ডাউনলোড করতে চান? জেনে নিন অনলাইনে ঘরে বসেই মৌজা কিভাবে বের করবেন বা অনুসন্ধান করবেন।

Advertisement

জমি ক্রয়-বিক্রয়, মালিকানা নিশ্চিত করন, জমির পরিমাপ করা ইত্যাদি কাজে প্রয়োজন হয় মৌজা ম্যাপের। ঘরে বসেই অনলাইনে আপনি যে কোন মৌজা ম্যাপ অনুসন্ধান করা, মৌজা ম্যাপ ডাউনলোড ও ম্যাপের সার্টিফাইড কপি পাওয়া যায়।

অনলাইনে মৌজা ম্যাপ বের করার এবং মৌজা ম্যাপ তোলার নিয়ম নিয়ে এই ব্লগে বিস্তারিত জানাব। আশা করি তথ্যগুলো আপনার কাজে লাগবে।

মৌজা কি?

মৌজা হচ্ছে বাংলাদেশের রাজস্ব আদায়ের সর্বনিম্ন একক এলাকা। সরকারি রাজস্ব আদায় ও নানা সুবিধা সাধারন মানুষের কাছে পৌছানোর জন্য বাংলাদেশকে বড় থেকে ছোট বিভিন্ন পর্যায়ে ভাগ করা হয়। যেমন- বিভাগ, জেলা, উপজেলা, মৌজা। এখানে মৌজা সর্বনিম্ন একক এলাকার ভাগ।

Advertisement

প্রতিটি গ্রামের জমি জরিপের মাধ্যমে বিভিন্ন জমি সম্পত্তি, জমির সীমানা, বাগান, তৃণভূমি এলাকা ইত্যাদি নির্দিষ্ট দাগ নম্বর অনুযায়ী চিহ্নিত করে মৌজা মানচিত্র বা ক্যাডাস্ট্রাল মানচিত্র প্রস্তুত করা হয়। মুঘল আমলে এলাকা নির্দেশে গ্রামের পরিবর্তে মৌজা নামটি ব্যবহার করা হতো। সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদে গিয়ে জানতে আপনার মৌজা এলাকার নাম।

আরও পড়ুন:

মৌজা ম্যাপ ডাউনলোড করার নিয়ম

ভূমি মন্ত্রনালয়ের www.eporcha.gov.bd ওয়েবসাইটে মৌজা ম্যাপ অপশন থেকে এলাকা, ম্যাপের ধরন, সিট নম্বর বা দাগ নম্বর বা অন্যান্য তথ্য দিয়ে মৌজা ম্যাপ ডাউনলোড করা যায়। এছাড়া অনলাইন থেকে আবেদন করে ও ফি প্রদান করে মৌজা ম্যাপের সার্টিফাইড কপিও সংগ্রহ করা যায়।

মৌজা বের অনুসন্ধান করার জন্য আপনার মোবাইল বা কম্পিউটার থেকে ভিজিট করুন www.eporcha.gov.bd ওয়েবসাইট। এখানে ডিজিটাল ভূমিসেবা ট্যাব থেকে মৌজা ম্যাপ অপশনে গিয়ে বিভাগ, জেলা ও ম্যাপের ধরন বাছাই করুন। সবশেষে উপজেলা ও মৌজা সিলেক্ট করে জমির সিট নং বা দাগ নং দিয়ে মৌজার ম্যাপ অনুসন্ধান করতে পারবেন।

Advertisement

অনলাইনে মৌজা ম্যাপ বের সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি নিচে ধাপে ধাপে দেখানো হলো।

ধাপ ১: মৌজা ম্যাপ অনুসন্ধান করুন

প্রথমে সরাসরি এই লিংকে ক্লিক করে- https://eporcha.gov.bd/map-search-panel মৌজা ম্যাপ অনুসন্ধান ফরমে প্রবেশ করুন।

অনুসন্ধান ফরমে অনলাইনে আবেদনের জন্য কিছু তথ্য প্রদান করতে হয়। প্রথমে বিভাগ ও জেলা নির্বাচন করুন। তারপর আপনি কোন ধরনের মৌজা ম্যাপ দেখতে চান- বি এস, সি এস, বি আর এস, আর এস ইত্যাদি ম্যাপের টাইপ নির্বাচন করুন।

মৌজা ম্যাপ অনুসন্ধান

তারপর উপজেলা ও মৌজা নির্বাচন করুন। তারপর আপনার মৌজার সিট নাম্বার সিলেক্ট করুন অথবা আপনি চাইলে নির্দিষ্ট দাগ নাম্বার প্রদান করেও ম্যাপ দেখতে পারেন। তথ্য পূরন হলে ‘অনুসন্ধান করুন’ এ ক্লিক করুন।

Advertisement

ধাপ ৩: মৌজা ম্যাপ ডাউনলোড করুন 

আপনার প্রদান করা তথ্য সঠিক থাকলে অনুসন্ধানের ফলাফলে নির্ধারিত মৌজার ম্যাপ দেখানো হবে। এখান থেকে মৌজা ম্যাপ জমির নকশা ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।


মৌজা ম্যাপ জমির নকশা ডাউনলোড

উপরোক্ত আলোচনায় আমরা জানলাম মৌজা কিভাবে বের করবো। আপনার জমির সাধারন তথ্য যাচাইয়ে ম্যাপের এই ছবিটি ব্যবহার করতে পারবেন।

কিন্তু কোন জমির পরিমাপের ক্ষেত্রে এই মৌজা ম্যাপ জমির নকশা প্রমানস্বরূপ উপস্থাপন করা যাবে না। তার জন্য প্রয়োজন হবে মৌজা ম্যাপের সার্টিফাইড কপি।

ছবিতে দেখানো নিচের লেখাতে ক্লিক করে সার্টিফাইড কপির জন্য আবেদন করতে পারবেন ।

Advertisement

কিভাবে মৌজার সার্টিফাইড কপি বের করবো?

মৌজা ম্যাপের সার্টিফাইড কপি পেতে ম্যাপের নিচে লেখা সার্টিফাইট কপি পেতে আবেদন করুন লিংকে ক্লিক করে আবেদন করতে হবে। এখানে আবেদনকারীর জাতীয় পরিচয়পত্র, জন্ম তারিখ, মোবাইল নম্বর ও ঠিকানার তথ্য দিন। সবশেষে পেমেন্ট অপশন সিলেক্ট করে ফি পরিশোধ করে আপনার ঠিকানায় ডাকযোগে মৌজার সার্টিফাইড কপি পাবেন।

ধাপ ১: আবেদনকারীর তথ্য দিন

মৌজা ম্যাপের আবেদন ফরমে প্রবেশ করলে ম্যাপ প্রদানকারী অফিসের নাম- ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তর, ম্যাপ ডেলিভারীর ধরন ও মাধ্যম ডিফল্টভাবে নির্ধারিত থাকবে। তারপর একটি জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর, জন্ম তারিখ ও হাতে থাকা একটি মোবাইল নাম্বার লিখে যাচাই করুন এ ক্লিক করতে হবে।

এখানে, একটি আইডি কার্ড ও মোবাইল নাম্বার দিয়ে মাসে সর্বোচ্চ ১ বার আবেদন করা যায়। জাতীয় পরিচয়পত্রের তথ্য সঠিক হলে পরবর্তী ধাপে নিয়ে যাবে।

আবেদনকারীর নাম, একটি ইমেইল এড্রেস, ঠিকানা ও জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর ধাপে ধাপে লিখতে হবে। তারপর একটি যোগফলের উত্তর দিতে হবে হিউম্যান ভেরিফিকেশনের জন্য। (যেমন- 1+7= 8)

কিভাবে মৌজার সার্টিফাইড কপি বের করবো

ধাপ ২: পেমেন্ট করুন

মৌজা ম্যাপের সার্টিফাইড কপি পেতে সরকারি ফি প্রদান করতে হয়। পেমেন্ট বিবরনে সম্ভাব্য প্রদানের তারিখ ও পেমেন্টের পরিমান দেখানো হবে। এখানে সাধারন ফি ৫২০ টাকা ও ডাকঘরের মাধ্যমে ম্যাপ পাঠানো হয় বলে পোস্ট ফি ১১০ টাকা প্রদান করতে হবে। (বি:দ্র:- এলাকাভেদে সার্টিফাইড কপির ফি কম-বেশি হতে পারে)

একপে এবং উপায় এই দুটি মাধ্যমে ফি পরিশোধ করা যায়। আপনার পেমেন্ট অপশন টি সিলেক্ট করে পরবর্তী ধাপে ক্লিক করুন।

তারপর ধারাবাহিকভাবে অনলাইন পেমেন্ট সম্পূর্ন করে আবেদন সাবমিট করুন। সঠিকভাবে আবেদন করার ১৫ দিনের মধ্যে আপনার মৌজা ম্যাপের সার্টিফাইড কপি সংগ্রহ করতে পারবেন।

FAQ’s

মৌজা হচ্ছে বাংলাদেশের রাজস্ব আদায়ের সর্বনিম্ন একক এলাকা। সরকারি রাজস্ব আদায় ও নানা সুবিধা সাধারন মানুষের কাছে পৌছানোর জন্য বাংলাদেশকে বড় থেকে ছোট বিভিন্ন পর্যায়ে ভাগ করা হয়। যেমন- বিভাগ, জেলা, উপজেলা, মৌজা। এখানে মৌজা সর্বনিম্ন একক এলাকার ভাগ। জমির মালিকানার হিসাব রাখার জন্য মৌজা ম্যাপ ব্যবহার করা হয়।

ভূমি মন্ত্রনালয়ের অধীনে www.eporcha.gov.bd ওয়েবসাইটে মৌজা অনুসন্ধান অপশন থেকে এলাকা, মৌজা ম্যাপের ধরন, সিট নম্বর বা দাগ নম্বররসহ অন্যান্য তথ্য দিয়ে মৌজা ম্যাপ অনুসন্ধান করে দেখা যায়। এবং অনলাইন থেকে আবেদন করে ও ফি প্রদান করার মাধ্যমে মৌজা ম্যাপের সার্টিফাইড কপি সংগ্রহ করা যায়।

মৌজা ম্যাপের সার্টিফাইড কপির জন্য আবেদনের সাধারন ফি ৫২০ টাকা ও পোস্ট ফি ১১০ টাকা প্রদান করতে হয়। তবে এলাকাভেদে ফি কম-বেশি হতে পারে।

নির্ভুল আবেদনের পর মৌজা ম্যাপের সার্টিফাইড কপি পেতে ১৫-২০ দিন সময় লাগে।

শেষকথা

জমির সঠিক পরিমাপ করতে ও জমি ক্রয়-বিক্রয়ে প্রতারণা থেকে বাচতে মৌজা ম্যাপ অনুসন্ধান করে জমি যাচাই করতে হবে। তাই তাৎক্ষনিক প্রয়োজনের সময় অনলাইনে মৌজা কিভাবে বের করা যায় তা সকলেরই জানা উচিত।

পোস্ট সম্পর্কিত কোন মতামত থাকলে কমেন্টে জানান। অনলাইন সার্ভিস ভিত্তিক এরকম তথ্য জানতে ভিজিট করুন আমাদের ওয়েবসাইট, ধন্যবাদ।

Advertisement

Similar Posts

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।